সাভার প্রতিনিধি: আশুলিয়ায় পুলিশের কাজে বাঁধা প্রদান করে পুলিশকে মারধোর করায় ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোঃ সুমন পন্ডি(৩৫) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। ভুক্তভোগী পুলিশ সদস্যকে প্রাথমিক চিকিৎসাসেবা প্রদান করা হয়েছে।

এরআগে, সুমন পন্ডির বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ হয়ে সরকারি কাজে বাঁধা দেয়া সহ মারধোর এবং ভয়ভীতি প্রদর্শনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন অর রশিদ।

গ্রেফতার সুমন পন্ডি আশুলিয়ার পাথালিয়া ইউনিয়নের চাকলগ্রাম এলাকার মৃত শাহ আলমের ছেলে। তিনি বর্তমানে পাথালিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাতে ৯৯৯ এ এক মারামারির ঘটনা শুনে তারা ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের পাশে নবীনগর এলাকায় জাতীয় স্মৃতিসৌধের সামনে সামনে যায়। সেখানে মারামারির সাথে জড়িত অজ্ঞাত কারো পক্ষ নিয়ে পুলিশের সাথে উচ্ছৃংখল আচরণ করে সুমন পন্ডি এবং তার সঙ্গে থাকা পুলিশের গাড়ি চালক রাশিদুলকে(ড্রাই কং/১৫৭৬) মারধর করে নীলাফোলা জখম করে। এ সময় সুমন পন্ডি পুলিশের কাজে বাঁধা প্রদান করে এবং পুলিশ সদস্যদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করে।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, সুমন পন্ডির বিরুদ্ধে ১৪৩, ৩৩২, ৩৫৩ ও ৫০৬ ধারায় মঙ্গলবার মামলা দায়ের করা হয়েছে। আশুলিয়া থানায় মামলা নং-৩০। সুমন পন্ডিকে এই মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আজ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। তার নামে এর আগেও মাদক মামলা আছে। সে মাতাল ছিল কিনা মেডিকেল টেস্টের রিপোর্ট পেলে জানা যাবে।

প্রসঙ্গ, ২০১৯ সালের ৩ আগস্ট ফেন্সিডিল ও এক সহযোগী সহ পুলিশের কাছে আটক হন সুমন পন্ডি ওরফে সুমন পন্ডিত ওরফে সুমন মন্ডল পন্ডিত।