হুবহু পত্রিকার পাতায় পড়তে ছবিতে ক্লিক করুন

এম এ মতিন এবং ইমরান হোসেন

আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব প্রত্যাশীদের প্রতিযোগিতা কোনোভাবেই যেন প্রতিহিংসায় রূপ না নেয়, সেদিকে দৃষ্টি রাখতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন দলটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক।

গতকাল চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি একথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, দলের নেতৃত্বের প্রয়োজনে তীব্র প্রতিযোগিতা থাকবে, কিন্তু সেটা যেন কখনোই প্রতিহিংসায় রূপ না নেয়। প্রতিহিংসায় রূপ নিলে তা আত্মঘাতীমূলক হয়। সুতরাং দলের তৃণমূল থেকে শুরু করে সর্ব্বোচ্চ পর্যায় পর্যন্ত এই এই জায়গাটা ঠিক রাখতে হবে।

বিশেষ অতিথি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রভাবশালী সদস্য পারভীন জামান কল্পনা বলেন, তৃণমূল চায় যারা সৎ, পরিশ্রমী, নেতা-কর্মীদের দুঃখ কষ্টে পাশে থাকে, তাদের কথা মনযোগ দিয়ে শোনে, বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে আন্তরিক থাকে; এই ধরনের নেতৃত্বই তৃণমূল কাউন্ট করে।

গতকাল বেলা ১২টায় বাংলালদেশ আওয়ামী লীগ জীবননগর উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন এর শুভ উদ্বোধন করেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি চুয়াডাঙ্গা ১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য, সাবেক হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন।

জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম মোর্তুজার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সাংগঠনিক সম্পাদক বি,এম মোজাম্মেল হক, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য, পারভীন জামান কল্পনা, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজাদুল ইসলাম আজাদ, চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগ সহ-সভাপতি চুয়াডাঙ্গা ২ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য, হাজী আলী আজগার টগর। সম্মেলনে চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রিয়াজুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার টোটনসহ জেলা আওয়ামী লীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সম্মেলনে জীবননগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি উপাধাক্ষ নজরুল ইসলামকে এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আবু লতিফ অমলের নাম ঘোষণা করেন নেতৃবৃন্দ।