নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নোয়াখালী জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভায় ১৪৪ ধারা জারি করেছেন বসুরহাট উপজেলা প্রশাসন। বসুরহাট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচির কারণে উপজেলা প্রশাসন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

গতকাল রবিবার (২১ শে ফেব্রুয়ারি) রাত ১১ টার দিকে বসুরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউল হক মীর বসুরহাট পৌরসভায় সোমবার (২২ শে ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারার এ আদেশ জারি করেছেন।রবিবার রাতেই বসুরহাট বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

মুজাক্কির হত্যাকাণ্ডের পর কাদের মির্জা-বাদল গ্রুপের পক্ষ থেকে একই দিন একই স্থানে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দেওয়ায় জনমনে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

সেতুমন্ত্রীর ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জার অনুসারীরা সাংবাদিক মুজাক্কিরের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে তাকে তাদের কর্মী দাবি করে শনিবার রাতে এ হত্যাকাণ্ডের জন্য প্রতিপক্ষকে দায়ী করে তাদের গ্রেপ্তার দাবিতে বসুরহাটে বিক্ষোভ মিছিল করেন। পরে সোমবার দুপুরে বসুরহাট রূপালী চত্বরে শোক ও প্রতিবাদ সভার কর্মসূচির ঘোষণা করে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর জাহেদুল হক রনি জানান, দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি দেয়ার কারণে কোনো স্থানে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি যেন অবনতি না ঘটে সেজন্য অতিরিক্ত পুলিশ ও ডিবি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জিয়াউল হক মীর বলেন, দুই পক্ষ বসুরহাটে একই স্থানে পাল্টাপাল্টি সমাবেশ ডাকায় সমগ্র বসুরহাট পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। এ সময় সব ধরনের সভা সমাবেশ ও মিছিল নিষিদ্ধ করা হয়েছে।