রাজশাহী ব্যুরোঃ রাজশাহীর বাঘায় ভারতের বিএসএফ কর্তৃক ৩ জেলেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার পর তাদের ফেরত দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ নভেম্বর) বেলা ৪টায় পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বিএসএফতাদের ফেরত দেয়। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টার দিকে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত ঘেঁষা বাঘা উপজেলার আতারপাড়া এলাকার পদ্মা নদীতে মাছ ধরার সময়, নিজ দেশের সীমানা অতিক্রম করে ভারতের সীমানায় অনুপ্রবেশের অভিযোগে বাংলাদেশী নাগরিক ৩ জেলেকে ধরে নিয়ে যায় বিএসএফ।

বিএসএফর হতে আটক কৃতরা হলেন, বাঘা উপজেলার মীরগঞ্জের ভানুকর চাইপাড়ার খলিল ব্যাপারির ছেলে বাবু ব্যাপারি (৩০),চারঘাট উপজেলার রাওথা গ্রামের ইয়াজলের ছেলে এনামুল হক (৪৫),একই গ্রামের সাজদার রহমানের ছেলে হাসিবুল ওরফে ডাবু (২০)।

রাজশাহী ব্যাটালিয়ন (১ বিজিবি), মীরগঞ্জ বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক সুবেদার আব্দুল মান্নান বলেন, তাদের ফিরিয়ে আনার জন্য আলাইপুর বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার চিঠি দিয়ে পতাকা বৈঠকের আমন্ত্রণ জানান। তাদের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে মঙ্গলবার বিকেল ৪ টায় পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ফেরত দেন বিএসএফ। পরে তাদের বিজিবি ক্যাম্পে নেয়া হয়। আইনি প্রক্রিয়ায় মাধ্যমে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান বিজিবির এ কর্মকর্তা।

রাজশাহী ব্যাটালিয়ন (১ বিজিবি), এর আলাইপুর বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার আবু তালেব বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভারতের বিএসএফ ক্যাম্পের কোম্পানি কমন্ডারকে চিঠি দেওয়ার পর,তাদের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ফেরত দেয়।

উল্লেখ্য,স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, সীমান্ত এলাকার আতারপাড়ার পদ্মা নদীতে মাছ ধরতে যায় ওই ৩জন জেলে। জাল উঠানোর সময়,ভারতের সীমানায় অনুপ্রবেশের অভিযোগে ওই দেশের বিএসএফ বাংলাদেশী নাগরিক ওই ৩ জেলেকে ধরে নিয়ে যায়।

২৩ নভেম্বর ভারতের সীমানায় অনুপ্রবেশের অভিযোগে ওই দেশের বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশী নাগরিক দুই কৃষককে আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে ভারতের জলঙ্গি থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরে ভারতের বিএসএফকে পতাকা বৈঠকের আমন্ত্রন জানিয়ে চিঠি দিয়েছিল আলাইপুর বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার। সন্মতি জানালেও পরে সাড়া দেননি।