মোস্তাফিজুর রহমান লালমনিরহাটঃ
লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় শহীদুন্নবী জুয়েল নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় বুড়িমারী ইউনিয়নের ০১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাফিজুল ইসলাম (৪৭) দীর্ঘ দিন আত্ন গোপনে থাকার পর পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন। এ নিয়ে এ ঘটনায় মোট ৫৩ জনকে গ্রেফতার করা হলো।বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) রাত ১২টার দিকে বুড়িমারীর ইসলাম পুর গ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছেন পাটগ্রাম থানা পুলিশ। শুত্রুবার সকালে তাকে আদালতে হাজির করা হবে। গ্রেফতার হাফিজুল ইসলাম (৪৭) বুড়িমারী ইসলাম পুর গ্রামের মৃৃত ইছামুদ্দিন ছেলে।পাটগ্রাম থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুমন কুমার মহন্ত বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মামলার তদন্তে দোষী প্রমানিত হওয়ার ইউপি সদস্য হাফিজুল ইসলাম গ্রেফতার করা হয়েছে।

এ ঘটনায় দায়ের করা পৃথক তিনটি মামলায় এখন পর্যন্ত প্রধান আসামিসহ ৫৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে ১৩ আসামির তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।পরবর্তীতে ওই ঘটনায় পাটগ্রাম থানায় হত্যাসহ পৃথক তিনটি মামলা দায়ের হয়। এসব মামলায় এখন পর্যন্ত মোট ৫৩ জনকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা লালমনিরহাট ডিবি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওমর ফারুক।উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর রাত ৮টার দিকে পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী বাজারের বাসকল এলাকায় শহীদুন্নবী জুয়েলকে পিটিয়ে হত্যার পর তার মরদেহ পুড়িয়ে ফেলা হয়