কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের শ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজালাল মজুমদারের ওপর হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় তার ব্যক্তিগত গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) বিকেল ৩টার দিকে শ্রীপুর ইউনিয়নের নালঘর বাজারে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগীর দাবি, মনিরুজ্জামান জুয়েলের নেতৃত্বে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে তার ওপর হামলা চালানো হয়েছে।

মনিরুজ্জামান উপজেলার নালঘর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি বেলজিয়ামে থাকতেন; এখন বাড়িতে থাকলেও কোনো পেশাগত কাজের সঙ্গে জড়িত না।

ঘটনার পরে আধুনিক অস্ত্র হাতে মনিরুজ্জামান জুয়েলের দুটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। শুক্রবার ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখতে পাওয়া অস্ত্র অভিযুক্তের স্ত্রী থানায় জমা দিয়েছেন।

চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শুভরঞ্জন চাকমা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, শুক্রবার রাতে জুয়েলের স্ত্রী ফারজানা হক এসে অস্ত্রটি থানায় জমা দেন। অস্ত্রটির লাইসেন্স আছে। দেখতে অনেকটা সামরিক বাহিনীর অস্ত্রের মত হলেও এটি একটি টু পয়েন্ট টু বোর রাইফেল। এর মডেল হচ্ছে জিএসজি-৫। এটি জার্মানির তৈরি। আমরা তার লাইসেন্স চেক করে অস্ত্রটির সঙ্গে মিলিয়েছি। এর বৈধ লাইসেন্স আছে।”

লাইসেন্স থাকলেও অস্ত্র প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখানো যায় কিনা সে বিষয়ে ওসি বলেন, “যে ছবিটা ভাইরাল হয়েছে তা চেয়ারম্যানের ওপর হামলার দিনের নয়। ছবিটা অনেক আগের। যেহেতু হামলার দিন ছবিটা ভাইরাল হয়েছে, তাই আমরা তার পরিবারকে অস্ত্রটি জমা দেওয়ার জন্য চাপ দেই। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। অস্ত্র প্রদর্শন করে ভয়ভীতি দেখানোর প্রমাণ পেলে তার লাইসেন্স বাতিলের জন্য সুপারিশ করব।”