নাঈম মিয়া, ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ৫৭ কেজি গাঁজা‘সহ ০৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করছে র‌্যাব-১৪, সিপিসি- ৩ ভৈরব ক্যাম্প ।

আটকৃত গাঁজা ব্যবসায়ী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগর উপজেলার মাসাউড়া গ্রামের মৃত মন মিয়ার পুত্র মোঃ সেলিম মিয়া (৩৪), একই জেলার সরাইল উপজেলার রাজামারিয়াকান্দি গ্রামের মোঃ হুসেন মিয়ার পুত্র মোঃ কাউসার মিয়া (৪৫), একই গ্রামের মোঃ আনু মিয়ার পুত্র মোঃ জয় মিয়া (১৯) ও কুমিল্লা জেলার বুরিচং উপজেলার সাবেরবাজার গ্রামের মৃত তাজুল ইসলামের পুত্র মোঃ নেকবর হোসেন (২৯)।

র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) প্রতষ্ঠিালগ্ন থেকে সবসময় বিভিন্ন ধরণের অপরাধীদের গ্রেফতারের ক্ষেত্রেঅত্যন্ত অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে।র‌্যাবের সৃষ্টিকাল থেকে এ র্পযন্ত মাদক ব্যবসায়ী, র্শীষ সন্ত্রাসী, অপহরণকারী, সন্ত্রাসী, এজাহারনামীয় আসামী, ছিতাইকারী, চাঁদাবাজ, প্রতারকচক্র, র্ধষণকারী, র্পণোগ্রাফি বিস্তারকারী, চোরাকারবারীদরে গ্রেফতার করে সাধারণ জনগণের মনে আস্থা র্অজন করতে সক্ষম হয়ছে।

এরই ধারাবাহিকতায় ০৬ আগস্ট ২০২১ ইং তারিখ আনুমানিক ২৩.০৫ ঘটকিায় র‌্যাব-১৪, সিপিসি-৩ ভৈরব ক্যাম্প,কিশোরগঞ্জ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরব থানাধীন ভৈরবপুর উত্তরপাড়া সাকিনস্থ নাটালের মোড় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ঢাকা গামী লেনের উপর অভিযান পরিচালনা করে মাদক ব্যবসায়ী ১। মোঃ সলেমি মিয়া(৩৪), পিতা-মৃত মন মিয়া , ২। মোঃ কাউসার মিয়া(৪৫), পিতা- মোঃ হুসনে ময়িা, ৩। মোঃ জয় মিয়া(১৯), পিতা- মোঃ আনু মিয়া এসময় ধৃত আসামীর এর নকিট হতে ২০ কেজি মাদকদ্রব্য গাঁজা, ০১ টি ট্রাক উদ্ধার করে জব্দ করা হয়। একই তারিখ একই স্থান হতে আনুমানিক ২৩.৪৫ ঘটকিায় র‌্যাব-১৪, সিপিসি-৩ ভৈরব ক্যাম্প, কিশোরগঞ্জ এর একটি আভিযানিক দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচলনা করে মাদক ব্যবসায়ী ১। মোঃ নকেবর হোসনে(২৯), পিতা মৃত তাজুল ইসলাম এসময় ধৃত আসামীর নিকট হতে ৩৭ (সাতত্রিশ) কেজি মাদকদ্রব্য গাঁজা, ০১ টি কার্ভাড ভ্যান, মাদক বিক্রয়ের নগদ-৪৫০০ /- টাকা উদ্ধার করে জব্দ করা হয়।

ধৃত আসামীদরেকে জ্ঞিাসাবাদে জানা যায় যে, তারা র্দীঘদিন যাবত ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সীমান্তর্বতী এলাকা হতে চোরা চালানরে মাধ্যমে গাঁজা দেশের অভ্যন্তরে বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন ব্যাক্তির কাছে
ক্রয় করে বলে ধৃত আসামীরা স্বীকার করেন।