লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের মাধবপুরে বিষমুক্ত লাল শাক চাষে সফলতা পেয়েছেন মাধবপুর গ্রামের সবজি চাষি ইমান আলী। খরচ কম লাভ বেশি হওয়ায় এলাকার অনেক সবজি চাষি নতুন এ পদ্ধতিতে লাল শাক চাষে ঝুঁকে পড়েছেন। মাধবপুর উপজেলার ১১টি ইউনিয়ন সহ মাধবপুর গ্রামের ইমান আলী,৭ বছর আগে বাড়ির কাছে ৪৫ শতাংশ জমিতে লাল শাক চাষ শুরু করেন। তবে প্রথম বছর থেকে এখন পর্যন্ত তাকে লাল শাক চাষ করতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা অন্য কোনো ঝামেলায় পড়তে হয়নি।

নিজস্ব প্রযুক্তি আর স্থানীয় কৃষি অফিসের পরামর্শ ও সহযোগিতা পেয়ে থাকেন বলে তিনি জানান। কিন্তু কথা একটাই, ফলন একটু কম হলেও লাল শাক বিষমুক্ত হতে হবে। এ কারণে তিনি জৈব সার ব্যবহারসহ মানবদেহে ক্ষতিকর এমন ওষুধ প্রয়োগ বর্জন করেছেন এবং অন্য সবজি চাষিদের এ পরামর্শ দিচ্ছেন
কৃষক ইমান আলী জানান। নিজের ৪৫ শতাংশ জমিতে বিষমুক্ত লাল শাকের চাষ শুরু করেন। লাল শাক চাষে খরচ কম, লাভ বেশি।

জমিতে বীজ বপনের ২১ দিনের মধ্যে বেপারীরা ক্ষেত থেকে সব শাক কিনে নিয়ে যান একই জমিতে বছরে ১০ বার লাল শাকের চাষ করা হয়। শ্রমিকসহ অন্যান্য খরচ বাবদ প্রতিবার লাল শাক চাষ করতে গড় খরচ ৩৫০০ হাজার টাকা। ৪৫ শতাংশ জমিতে প্রতিবার প্রায় ৫০ মণের অধিক শাক উৎপাদন হয়। যার বাজারমূল্য কমপক্ষে ১০০ টাকা প্রতি মণ প্রতিবার ৩০ হাজার টাকার শাক বিক্রি করতে পারেন তিনি।

এ ক্ষেত্রে প্রতি বছর জমিতে খরচ হয় ৭০ হাজার টাকা আর লাল শাক বিক্রি হয় ২ লাখ ৯০ হাজার টাকা। সব খরচ বাদ দিয়ে বছরে ২ লাখ ৩০ হাজার টাকা লাভ পান ইমান আলী। মাধবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আল মামুন হাসান জানান, এই কৃষকের আগ্রহ এবং মনোবলের কারণে কৃষি ক্ষেত্রে তিনি এগিয়ে যাচ্ছেন। ইমান আলী এখন মাধবপুরে লাল শাক চাষিদের মডেল বলা যায়।