জাকির সিকদার, রাজাপুর প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলায় বড়ইয়া ইউনিয়নে ধীরগতিতে চলে আশ্রয়হীনদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর নিজ অর্থায়নে গৃহ নির্মাণ প্রকল্প -২ এর কাজ। যদিও গত মাসে কাজ নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়েছে।নদীর পাশেই কিছু দেবে যায় ঘর।সংবাদ প্রকাশের পর নতুন করে শুরু হয়েছে।

গত ১লা মে ২০২১ইংরেজীতে শুরু হয় কাজ তবে দ্রুত গতিতে করা হলে কস্ট লাগব হবে ঘর নাই পরের ঘরে বসবাস করে যারা তাদের। জানা গেছে
ঝালকাঠির রাজাপুরে ৫নং বড়ইয়া ইউনিয়নের উত্তমপুর জাঙ্গালিয়া নদীর পার্শ্ববর্তী তীর ঘেঁষা স্থানে গড়ে উঠেছে ভূমিহীনের আশ্রয় স্থল।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যড সরফরাজ কাজ তদারকি করেছেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোক্তার হোসেন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাছে দ্রুত কাজ করার দাগিত দিয়েছেন।
উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান নীজেই কাজ পরিদর্শন করেন।
উপজেলার বড়ইয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুরু মিয়া বলেন,সঠিকভাবে কাজ চলছে কোন সমস্য হবেনা।

সরোজমিনে দেখা গেছে, রাজাপুর
জেএল-৬৭, মৌজা- উত্তমপুর
দাগ- এসএ ১৯২৯, ১৯৩০, ১৯৩১, ১৯৩৩, ১৯৩৪, ১৯৩৫, ১৯৩৬ টি দাগের
মোট ১ একর ৪৫ শতাংশের জমির ওপর
সেমি পাকা দ্বি-কক্ষ বিশিষ্ট ৭০টি ঘর নির্মাণ কাজ সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হচ্ছে। ঘরগুলো নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে ভুমিহীন ও আশ্রয়হীন মানুষের মুখে হাসি ফোটবে এবং পরিবর্তন হবে তাদের জীবন যাত্রার মান।
প্রধানমন্ত্রী’র “আশ্রয়ন প্রকল্প” সারা দেশের ন্যায় রাজাপুর উপজেলা ভুমিহীন, আশ্রয়হীন, অসহায়দের একমাত্র ভরসা ও আস্থার স্থান। অসহায় মানুষ আশ্রায়ন প্রকল্পের মাধ্যমে আশ্রায় খুজে পেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে মন থেকে দোয়া ও তাদের মনিকোঠায় বেঁচে থাকবে এই আশা প্রকাশ করেন ঘর বরাদ্ধকৃতরা।

বিশেষ করে বড়ইয়ার উত্তমপুর জাঙ্গালিয়া নদীঘেঁষা আশ্রয়ন প্রকল্পের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হলে অত্র এলাকার অসহায়, নিঃস্ব, সহায়সম্বলহীন মানুষের মনে স্বস্তির নিঃশ্বাসের আশা করেন।