স্বপন আলী গাংনী  প্রতিনিধিঃ
মেহেরপুরে গাংনীতে তাপসী খাতুন (১৭) নামের এক গৃহ বধু আত্মহত্যা করেছে।
মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫ টার দিকে সে স্বামীর ঘরের বাঁশের আড়ার সাথে উড়না পেঁচিয়ে  আত্মহত্যা করে। তাপসী খাতুন গাংনী উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামের মন্ডলপাড়ার সাহাবুদ্দীনের মেয়ে এবং করমদী বহলপাড়ার জিয়াউর রহমানের ছেলে পলাশের স্ত্রী। এ ঘটনায় এলাকায় নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। কেউ কেউ বলছে তাপসীকে হত্যা করে টানিয়ে দেওয়া হয়েছে।
এদিকে তাদের মধ্যে কোন মন মালিণ্য ছিল না বলে জানিয়েছে তাপসীর পরিবার।
তাপসীর পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তারা দুজন স্থানীয় করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১০ম শ্রণিতে লেখা পড়া করে। লেখা পড়া করা  অবস্থায় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরই সূত্র ধরে গত ৬ মাস আগে তারা অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমায় এবং পরিবারের অমতে বিয়ে করে। এরপর উভয় পরিবার মেনে নেয়। তাদের মধ্যে খুব ভাল সম্পর্ক ছিল। কিন্তু হঠাৎ কেন আত্মহত্যা করল? এ ব্যপারে কোন পরিবারের লোকজন মন্তব্য করতে পারছেন না।
ঘটনার পর গাংনী থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
প্রাথমিক তদন্ত করে তিনি বলেন, এখনো কিছু বলা যাচ্ছে না। লাশ উদ্ধার করে থানায় নেওয়া হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।