হাজী সাইফুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টারঃ ঘটনার বিবরণে জানা যায়, মেহেরপুর সদরের বরশিবাড়িয়া গ্রামের মনিরুল ইসলামের মেয়ে শোভা খাতুন এর সাথে মেহেরপুর সদর উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের জুগিন্দা গ্রামের সবজান মন্ডলের ছেলে মোহাম্মদ শাহিন এর সাথে ১৮ মাস পূর্বে বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন বিষয়ে তাদের মধ্যে মাঝে মাঝে ঝগড়া ঝামেলা হয়। শোভা খাতুনরা চার বোন, এক ভাই। শোভা খাতুন এর পিতা চার কন্যা সন্তানের জনক হওয়ায় বিভিন্ন ঝামেলা হওয়ার পরেও বিয়ে বিচ্ছেদ ঘটায় নি এই ভেবে যে, একসময় হয়তো সব ঠিক হয়ে যাবে তার ধৈর্য পরিচয় দিতে গিয়ে সোমা খাতুন লাশ হয়ে ফিরল বাড়িতে।

গতরাতে তার স্বামী তাকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করে মাঝ রাতেই বাড়ির সবাই পালিয়ে যায়। এরপর সকালবেলায় প্রতিবেশীরা বাড়িতে কোন সাড়াশব্দ না পেয়ে শাহিনের বাড়িতে গিয়ে খোজ নিতে গিয়ে দেখে, শোভা খাতুনের মৃতদেহ পড়ে আছে আর বাড়িতে কেউ নাই।

তারপর তারা সঙ্গে সঙ্গে শোভা খানের বাবা মনিরুল ইসলাম ও স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পে ফোন করলে স্থানীয় পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য নিয়ে আসে। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা দাখিল করার প্রস্তুতি চলছে।