উৎপল ঘোষ,(ক্রাইম রিপোর্টার) যশোরঃ যশোরে আদালতে যাওয়ার পথে আইনজীবীর কাছ থেকে রাজু বিশ্বাস ওরফে টুটু (৩৫) নামে এক হত্যা মামলার আসামিকে দুর্বৃত্তরা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। আজ সকাল সাড়ে দশটার দিকে জেলা জজ কোর্টের সামনের রাস্তায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানানো হয়েছে। তবে পুলিশ বলছে, তারা এ বিষয়ে কিছু জানে না।
রাজু বিশ্বাস যশোরের অভয়নগর উপজেলার ধোপাদী গ্রামের ভ্যানচালক শুকুর আলী হত্যা মামলার একমাত্র আসামি।
রাজু বিশ্বাসের আইনজীবী তাজমিলুর রহমান সরদার স্বপন বলেন, ‘রাজু বিশ্বাস আজ আদালতে আত্মসমর্পণ করতে আমার কাছে এসেছিলেন। ওকালতনামায় স্বাক্ষরসহ প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তৈরি শেষে আমি তাকে নিয়ে আইনজীবী সমিতি থেকে আদালতে যাচ্ছিলাম। জজ কোর্টের সামনের রাস্তায় পৌঁছাতেই একদল লোক আমাদের ঘিরে ধরে। এরপর তারা ধস্তাধস্তি করে জোরপূর্বক রাজু বিশ্বাসকে একটি গাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে যায়। আমি নিজের পরিচয় দিয়ে তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলেও তারা হুমকি-ধামকি দিয়ে চলে যায়।’
তিনি আরো বলেন, ‘আমি আদালতে গিয়ে বিচারককে বিষয়টি অবহিত করেছি। একইসাথে রাজু বিশ্বাসকে উদ্ধারে প্রশাসনের সহায়তা কামনা করছি।’
এ বিষয়ে জানতে চাইলে যশোর কোতয়ালী থানার ওসি তাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমি আসামি ছিনতাইয়ের কোনো ঘটনা জানি না। পুলিশের কেউ নিয়েছে বলেও জানি না। আমার থানার কেউ এ ধরনের কোনো অভিযান পরিচালনা করেনি।’
অভিযোগ, গত ৩ এপ্রিল রাজু বিশ্বাসের ভ্যান-রিকশা মেরামতের দোকানে যান শুকুর আলী নামে এক ব্যক্তি। এরপর তিনি নিজের ভ্যান মেরামত করান। মজুরির ৩০ টাকা কাজ শেষে সন্ধ্যায় ফেরার পথে দেওয়ার কথা বলে শুকুর আলী চলে যান। সন্ধ্যায় ফেরার পথে রাজু বিশ্বাস পাওনা টাকা চান। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে রাজু বিশ্বাস উত্তেজিত হয়ে হাতে থাকা রেঞ্জ দিয়ে শুকুর আলীর মাথায় আঘাত করে। স্থানীয়রা শুকুরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় শুকুর আলীর স্ত্রী আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে রাজু বিশ্বাসের নামে মামলা করেন। ঘটনার পর থেকে রাজু বিশ্বাস পলাতক ছিলেন।