উৎপল ঘোষ, (ক্রাইম রিপোর্টার) যশোরঃ মণিরামপুরের হেলাঞ্চি বাজার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া পাকা সড়কটি চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।
রাস্তা দিয়ে কয়েকদিন ধরে নিয়মিত বালিবাহী ট্রাক চলাচল করায় রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সড়কটি দেখে বোঝার উপায় নেই, এটি পাকা না কি মাটির রাস্তা।
বাজারের আশপাশে তিনটি রাস্তা সংস্কারের কাজ চলমান থাকায় সেই রাস্তার বালি হেলাঞ্চি কৃষ্ণবাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে স্তুপ করে রাখা হয়েছে। সেই বালি ট্রাকে বা ট্রলিতে করে হেলাঞ্চি বাজারের উপর দিয়ে আনা নেওয়া করা হচ্ছে। এতে কাদা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।
বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সরেজমিন হেলাঞ্চি এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, হেলাঞ্চি বাজারের নিচে, স্থানীয় দাখিল মাদরাসা মোড় হতে চাঁদপুর মাঝিয়ালী স্কুলমোড় পর্যন্ত ও হেলাঞ্চি গ্রামে একটিসহ মোট তিনটি রাস্তার পাকাকরণের কাজ চলছে। রাস্তার কাজে ব্যবহৃত ট্রলি বা ট্রাক চলাচল করায় হেলাঞ্চি হাসপাতাল মোড় হতে মাদরাসা মোড় পর্যন্ত প্রায় আধা কিলোমিটার পাকা রাস্তা কাদায় ভরে আছে। ফলে রাস্তায় চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে।
বৃহস্পতিবার সকালে সেই কাদা মাড়িয়ে খেদাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদে ভাতার টাকা তুলতে আসেন খড়িঞ্চি গ্রামের প্রতিবন্ধী রফিক হোসেন। তিনি বলেন, কাদায় হাঁটতে খুব কষ্ট হচ্ছে। ভ্যান পর্যন্ত চলতে পারছে না।
হেলাঞ্চি বাজারের মুদি দোকানি আলাউদ্দিন বলেন, বাজারের নিচে একটি রাস্তা পাকাকরণের কাজ চলছে। সেই রাস্তার কাজে ব্যবহৃত ট্রলির কারণে কাদা হচ্ছে।
স্থানীয় হিমাংশু সরকার বলেন, হেলাঞ্চী কৃষ্ণবাটি স্কুল মাঠ প্রাঙ্গনে আশেপাশের বিভিন্ন রাস্তার কাজের জন্য বালি রাখা হয়েছে। ওই বালি ট্রাকে করে বহন করার সময় রাস্তার এই বেহাল অবস্থা হয়েছে।
মণিরামপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ দেবনাথ বলেন, বিষয়টি গুরুত্বের সাথে দেখা হবে।