উৎপল ঘোষ, (ক্রাইম রিপোর্টার) যশোরঃ যশোর সদরে গৃহকর্ত্রী আমেনার ওপর পাশবিক নির্যাতনের ঘটনায় জড়িতদের আটক ও বিচার দাবিতে যশোরে মানববন্ধন হয়েছে। আজ দুপুর ১২টায় প্রেসক্লাব যশোরের সামনে এ মানববন্ধন হয়। এ মানববন্ধনেই কেঁদে কেঁদে নির্যাতনের বর্ণনা দেয় আমেনা।
যশোর সদর উপজেলার রাজাপুর গ্রামের বাসিন্দা আমেনা ঢাকায় মায়ের বান্ধবীর বাসায় কাজ করতে গিয়ে গত এক বছর ধরে নির্যাতিত হচ্ছিল। ঈদের পরে তাকে তার নানি উদ্ধার করে এনে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। তিনদিন চিকিৎসার পর সে বাড়িতে ফেরে। এ খবরে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী আজ এ মানববন্ধনের আয়োজন করে। মানববন্ধনের পাশেই একটি ইজিবাইকে অবস্থান করছিল নির্যাতনে অসুস্থ আমেনা।
আমেনা বলে, ছোট ছোট ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ তুলে নির্যাতন করা হতো। বেধড়ক মারপিট, গরম খুন্তির ছ্যাঁকা, প্লায়ার্স দিয়ে নখ, চুল তুলে ফেলা ছিল নিত্যঘটনা। এমনকি তাকে হাত-পা বেঁধে বুকের উপর পাড়িয়ে নির্যাতন করা হয়। সেইসাথে জবাই করে হত্যার প্রচেষ্টাও চালানো হয়েছিল দাবি করে সে জানায়, কিন্তু ভাগ্যক্রমে সে বেঁচে যায়।
কাঁদতে কাঁদতে সে আরো বলে, ‘এখনও বুক ও পেটে ব্যথা করে। ব্যথা সহ্য করতে পারি না।’
মানববন্ধন থেকে আমেনার নানি ও স্থানীয়রা জানান, ঘটনা ধামাচাপা দিতে অব্যাহতভাবে চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে। এ অবস্থায় জড়িতদের আটকের দাবি জানান তারা। একইসাথে ন্যায়বিচার পেতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করা হয় মানববন্ধন থেকে।
মানববন্ধনে যশোর সদর উপজেলা যুব মহিলালীগের সাধারণ সম্পাদক সাদিয়ান মৌরিন, আমেনার নানি জোহরা বেগমসহ গ্রামের শতাধিক লোক অংশ নেন।