নির্ধারিত সময় টাকা জমা না দেওয়ায় অনলাইনে কাটা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফরমেন্স স্টাডিজ বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র মহিউদ্দিন রনির ট্রেনের টিকিট বাতিল হয়ে যায়।

বাংলাদেশ রেলওয়ে বলছে, অনলাইনে টিকিট বুকিংয়ের ১৫ মিনিটের মধ্যে পেমেন্ট করতে হয়।

এছাড়া, নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও রনি কেবল টিকিটের দামই পরিশোধ করেছিলেন। সে কারণে তার টিকিট স্বয়ংক্রিয়ভাবে বাতিল হয়ে যায় এবং সেটি দিয়ে দেওয়া হয় আরেক গ্রাহককে। অনলাইন গণমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউনের এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে এ তথ্য।

পরে তিন দিনের মধ্যে তার টাকা ফেরত দিয়ে দেওয়া হয়। যদিও নিয়মানুযায়ী টাকা ফেরত পেতে আট কার্যদিবস সময় লাগে।

এরপরেও ঢাবি ছাত্র রনি ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকিট পার্টনার সহজ-এর নামে অভিযোগ দেন। তার অভিযোগ ছিল, প্রতিষ্ঠানটির প্রতারণামূলক ই-টিকিটিং সিস্টেমের ভুক্তভোগী হয়েছেন তিনি।

এ অভিযোগের ভিত্তিতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর টিকিট সরবরাহে অব্যবস্থাপনার দায়ে সহজকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করে।

সেদিন যা হয়েছিল
সূত্র জানায়, গত ১৩ জুন মহিউদ্দিন রনি রাজশাহীগামী সিল্ক সিটি এক্সপ্রেসের ক ৯, ১০, ১১ এবং ১২ নম্বর (মোট চারটি) সিট কিনেছিলেন।

তিনি টিকিটগুলো কেনেন ৮টা ৩৬ মিনিটে। যদিও তিনি পেমেন্ট হিসেবে ২,৬৮০ টাকা জমা দেন ৯টা ৩৭ মিনিটে।

১০টা ১৪ মিনিটে টিকিট পাননি জানিয়ে রনি রেলওয়ে অভিযোগ বিভাগে একটি ই-মেইল পাঠান।

১০টা ১৬ মিনিটে টিকিটের জন্য প্রয়োজনীয় তথ্য চেয়ে রনির কাছে একটি ফিরতি মেইল পাঠায় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার পর্যন্ত রনি তার অভিযোগের পক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রগুলো পাঠাননি।

ভোক্তা অধিকারে অভিযোগ
ভোক্তা অধিকারে দেওয়া অভিযোগে রনি উল্লেখ করেন, অনলাইনে পেমেন্ট করার পরেও তিনি টিকিট পাননি এবং কাউন্টারে গিয়ে তিনি দেখতে পান তার টিকিটগুলো অন্য একজনের কাছে বিক্রি করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, কোনো ধরনের প্রম্পট অথবা পাসওয়ার্ড ছাড়াই তার বিকাশ অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে।

রনির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার ভোক্তা অধিকারে জবাব পাঠিয়েছে সহজ। অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে সহকারী পরিচালক (অভিযোগ) মোহাম্মদ হাসানুজ্জামান বুধবার এ জবাবের অনুলিপি বুঝে নেন।

ওইদিন শুনানির পর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সহজকে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেন।