রাজশাহীতে ওষুধের ইচ্ছেমতো মূল্য আদায় করায় জরিমানা

ডা: মো: হাফিজুর রহমান (পান্না), রাজশাহী ব্যুরো :রাজশাহীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে রোগীদের দেয়া হতো বিদেশী ওষুধ। কিন্তু ওষুধের প্যাকেটে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য থাকত না। তাই রোগীর স্বজনদের কাছ থেকে ইচ্ছেমতো মূল্য আদায় করা হতো। অভিযোগ পেয়ে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ‘মাদারল্যান্ড ইনফার্টিলিটি সেন্টার অ্যান্ড হাসপাতালে অভিযান চালান। এ সময় হাসপাতালটিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এটি নগরীর লক্ষীপুর এলাকায় অবস্থিত। হাসপাতালটির মালিকের নাম ডা: ফাতেমা সিদ্দিকা। তিনি স্ত্রী ও প্রসূতি রোগ বিশেষজ্ঞ।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হাসান-আল-মারুফ জানান, হাসপাতালটিতে সেবা নিতে আসা রোগীদের বিদেশী ওষুধ লিখে দেয়া হতো। এসব ওষুধ অন্য কোন ফার্মেসিতে পাওয়া যায় না। শুধু এই হাসপাতালের ফার্মেসিতেই পাওয়া যায়। অভিযোগ পাওয়া যায়, এসব ওষুধে ইচ্ছেমতো মূল্য আদায় করা হয়।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) বিকালে নিয়মিত অভিযানের অংশ হিসেবে তিনি হাসপাতালটিতে অভিযানে যান। এ সময় হাসপাতালের ফার্মেসিতে বিদেশী ওষুধ পাওয়া যায়। কিন্তু ওষুধের আমদানীকারক কোন প্রতিষ্ঠান তা প্যাকেটের গায়ে লেখা দেখতে পাওয়া যায়নি। সর্বোচ্চ খুচরা মূল্যও লেখা ছিল না।


তাই হাসপাতালটিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জরিমানার এ অর্থ পরিশোধ করেছেন। জনস্বার্থে এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরের কর্মকর্তা হাসান-আল-মারুফ