জাকির সিকদার, রাজাপুর (ঝালকাঠি) প্রতিনিধি: ঝালকাঠির রাজাপুর সদর ইউনিয়নের ডিগ্রী কলেজ সংলগ্ন পরের ঘরে বসবাস বিধবা আছিয়া বেগমসহ দুই প্রতিবন্ধীর।

মা ও মেয়ে বছরের পর বছর অন্যের ভাঙা ঘরে বসবাস করে আসছেন।

সেই ঘরেও বৃষ্টির পানিতে থাকতে পারেনা।খুবই কষ্টকর, তাই সকালে তাদের আহাজারি দেখেন, দেখার কেউ নাই। আছিয়ার মেয়েটি বারমাস ভিক্ষা করে, কত টাকা চাইবে তাহাও বোঝেনা,হাবাগোবা বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। ভিক্ষা করে মা ও মেয়ে দু’জনে।

মানুষের কাছে ভিক্ষায় ১ টাকার বেশি চায় নাএই পরিবারটি।
তাদের ঘর পাওয়ার উপযুক্ত বলে মনে করেন এলাকাবাসী।
তাই সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন উক্ত পরিবার জন্য। সরকারের দৃষ্টি আর্কশন ও যথাযোগ্য কতৃপক্ষের কাছে দাবি করেন আওয়ামী লীগের নেতা ডেজলিং তালুকদার।৷
তিনি বলেন, গত বৎসর সাবেক ছাএলীগ নেতা আবু মুসা সোহাগ কিছু পলিথিন কিনে চালে দেওয়ার ব্যাবস্থা করেছিল অন্যের ঘর বিধায় টিন দেয়নি।তবে সরকারী নজরদারি কামনা করেন সবাই। বহু আগেই দৃশ্য সবার নজরকরা হলেও কেহ এগিয়ে আসেনী বলে কেঁদে দিল আছিয়া বেগম।

এ ব্যাপারে সদর রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম স্বপন তালুকদার বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।