নিজস্ব প্রতিবেদকঃ মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর হামলায় বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় চাপ অব্যাহত রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (৪ অক্টোবর) জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগদানের ওপর আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এবারের অধিবেশনে রোহিঙ্গা সমস্যা ও এর স্থায়ী সমাধানের বিষয়টি ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়। যা রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ অব্যাহত রাখবে বলে আমি আশা করি।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা মিয়ানমারের তৈরি করা। সমাধানও রয়েছে মিয়ানমারের হাতে।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘করোনা মহামারি শুরুর প্রায় দুই বছর পর এবারই প্রথম আমি দেশের বাইরে সশরীরে কোনও আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগদান করি। নিউইয়র্কে অবস্থানকালে আমার অত্যন্ত ব্যস্ত সময় কাটে। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৬তম অধিবেশনের মূল সভা ও সাইড ইভেন্ট মিলিয়ে সর্বোমোট ১০টি সভা ও ৮টি দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে অংশ নিই। ৭৬তম অধিবেশনের সাধারণ বিতর্কপর্বের উদ্বোধনী দিনেও যোগদান করি।’

তিনি বলেন, ‘কোভিড-১৯ মহামারির প্রেক্ষাপটে প্রত্যাশাকে উপজীব্য করে এবারের অধিবেশনে আলোচনার কেন্দ্রে ছিল মহামারি থেকে টেকসই উত্তরণ। কোভিড-১৯ টিকার সর্বজনীনপ্রাপ্যতা, সহজলভ্যতা ও মহামারি থেকে টেকসই পুনরুদ্ধার স্বভাবতই আলোচনায় প্রাধান্য পেয়েছে। পাশাপাশি জলবায়ুর পরিবর্তন, নারীর ক্ষমতায়ন, সমতা ও অন্তর্ভুক্তি, টেকসই উন্নয়ন তথা এসডিজি, পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ এসবও আলোচনায় উঠে এসেছে।