মোস্তাফিজুর রহমান, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে শামিম হোসেন (২৮) নামে এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় জড়ি এক ছাত্রলীগ নেতা রশিদুল ইসলাম (৩২) কে গ্রেফতার করেছেন সিআইডি ও থানা পুলিশ।সোমবার (০৯ আগস্ট) ভোরে হাতীবান্ধা উপজেলার দোলাপাড়া গ্রামে যৌথ অভিযোন চালিয়ে হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত রশিদুল ইসলামের কে গ্রেফতার করেন।এ ঘটনায় শামিম হোসেনের বোন মোছা: আশিকা আফরোজ বাদী হয়ে হাতীবান্ধা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ মামলার প্রধান আসামী তোয়াব আলী (৩৮) গ্রেফতা করতে সক্ষম হন। এ মামলার বাকী আসামীরা পলাতক থাকায় পরর্বতীতে মামলাটি লালমনিরহাট সিআইডি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।গ্রেফতারকৃত রশিদুল ইসলাম (৩২) উপজেলার বড়খাতা দোলাপাড়া গ্রামের জাহিদুল ইসলামের ছেলে। সে বড়খাতা ডিগ্রী কলেজ ছাত্রলীগের সহ সভাপতি পদে রয়েছেন।পুলিশ সুত্রে জানায়, গত ২৯ নভেম্বর লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার ফকিরপাড়া ইউনিয়নের বুড়াবাউরা গ্রামের আব্দুর রহমান আমুর ৩৪ শতাংশ জমি একই উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের দোলাপাড়া গ্রামের তোয়াব আলী নিজের দাবি করে দখল নেয়ার চেষ্টা করলে উভয়ের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় আমিনুর রহমান আমুর ছেলে শামিম হোসেন সংঘর্ষ থামাতে আসলে তোয়াব আলীর ভাড়াটে লোকজন শামিমের ওপর চড়া হয়ে বেধরক মারপিট করে। এতে সে গুরুতর আহত হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় গত বুধবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকায় লালমনিরহাট সিআইডি পুলিশ রশিদুল ইসলাম নামে একজনকে গ্রেফতার করে লালমনিহাট নিয়ে যান।