শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে নিহত শিক্ষার্থী বুলবুল আহমেদকে হত্যার ঘটনায় জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার আজবাহার আলী শেখ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাদের কাছ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত চাকু ও মোবাইল ফোনও উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

আজবাহার আলী শেখ বলেন, বুলবুল হত্যায় জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। প্রথমে কামরুল আহমেদকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে বাকি দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়। বর্তমানে তারা থানায় পুলিশের হেফাজতে আছে। তাদের নিকট থেকে বুলবুল হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি ও বুলবুলের মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃত তিনজন হলেন- কামরুল আহমেদ (২২), আবুল হোসেন (১৮) ও মোহাম্মদ হাসান (১৮)। তাদের সবার বাড়ি সিলেটের এয়ারপোর্ট থানার অন্তর্ভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের পার্শ্ববর্তী টিলারগাঁও এলাকায়। তারা সবাই পেশায় রাজমিস্ত্রি বলে জানা যায়।

হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন হিসেবে আটক কামরুল ইসলামের টিলাগাঁওয়ের বাড়ি থেকে বুধবার সকালে মোবাইল এবং ওই ছুরিটি উদ্ধার করা হয়।