নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
নাটোরের বড়াইগ্রামে সচিবালয়ের স্টিকারযুক্ত একটি জিপ গাড়ি থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মো. হযরত আলী (৩৫) নামে এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনায় ওই জিপ গাড়ি জব্দসহ চালক মিজান শেখকে (৪২) আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২২ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বনপাড়া বাইপাস মোড় এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

হযরত আলী রংপুর জেলার বাসিন্দা এবং ঢাকার আশুলিয়া এলাকার তাজ এন্টারপ্রাইজ নামে একটি পাটের গোডাউনের কর্মচারী ছিলেন বলে জানা গেছে। আর আটক মিজান শেখ মাগুরার শেরপুরের মৃত গোলাম হায়দারের ছেলে।

বড়াইগ্রাম থানার বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মো. রাশেদুল ইসলাম বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ সকাল ১০টার দিকে বনপাড়া বাইপাস মোড়ে বাংলাদেশ সচিবালয়ের স্টিকারযুক্ত একটি জিপ গাড়িতে (ঢাকা মেট্রো-ঘ ১৪-০৫৮৭) তল্লাশি চালানো হয়। এ সময় গাড়িটির পেছনে ডিকির মধ্যে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় মরদেহটি পাওয়া যায়। পরে সেটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। আর চালকসহ জিপ গাড়িটি আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।

গাড়ি চালক মিজানের বরাত দিয়ে তিনি আরও জানান, মিজান মঙ্গলবার ভোরে ওই মরদেহটি আশুলিয়ার পাট গোডাউন থেকে জিপে তুলে নাটোরের লালপুরে তার (মিজান) শ্বশুরবাড়ি এলাকায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। এ ঘটনায় বেশ কিছু তথ্য দিয়েছেন তিনি। এ নিয়ে অনুসন্ধানে নেমেছে পুলিশ এবং এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।