শামীম হায়দার, বাঘারপাড়া (যশোর) প্রতিনিধিঃ সরকার নিষিদ্ধ কারেন্ট জালে মাছ শিকারের ফলে বিলুপ্তির পথে বাঘার পাড়া থানার চিত্রা নদীর ছোট ছোট মাছ।নদী খননের পর পানির চাপ বেড়ে যাওয়ায় সুতোর তৈরি জালে ধরা পড়েনা ছোট ছোট ডিম ওপোনা যুক্ত মাছ।

সরকার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল নিষিদ্ধ হওয়া সত্বেও হাজার হাজার মানুষ কারেন্ট জাল  ব্যবহার করে মৎস্য সম্পদের বিরাট ক্ষতি সাধিত করছে। এসব কারেন্ট জাল কিনতে পাওয়া যাচ্ছে থানাসংলগ্ন আশেপাশের ছোট ছোট দোকানে। প্রস্তুত করতে খরচ হয় তিন হাজার টাকার উপরে।

কারেন্ট জাল এমনই একটা জাল যেটা পানিতে ব্যবহার করার পর আশেপাশে ছোট ছোট মাছগুলো বা বড় মাছ সব আটকে যায় অনায়াসে। বর্তমান সময়ে অধিকাংশ মাছের পেটে ডিম থাকায় উক্ত মাছ নিধনের ফলে মৎস্য  সংকট হয়ে পড়ছে থানা সংলগ্ন চিত্রা নদী ওআশে পাশের খাল বিল।পুটি,টেংরা, বাইন,শোল,শিংমাছ নদীর প্রধান মাছ।এসব মাছ কারেন্ট জালে নিধনের পর চড়া দামে বিক্রি হয় আশে পাশের বড় ছোট বাজারে।

এক সময় চিত্রা নদী ছিল মাছের অভয় আশ্রম।কারন্ট জালে মাছ শিকারের ফলে নদীতে এখন আর মাছ দেখা যাচ্ছে না।মৎস্য অধিদপ্তর বা প্রশাসন ও কোন ব্যাবস্হা নিচ্ছে না।