জসীম উদ্দীন, শার্শা উপজেলা প্রতিনিধিঃ প্রথম আলোর সিনিয়র সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্থা, নির্যাতনের প্রতিবাদ ও তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে শার্শা-বেনাপোল সাংবাদিক সমাজ। সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাকে মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক আখ্যায়িত করে অবিলম্বে তাঁকে নিঃশর্ত মুক্তি দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন শার্শা-বেনাপোল সাংবাদিক সমাজের নেতারা। প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে আয়োজিত মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল থেকে এই দাবি জানানো হয়েছে।

বেনাপোল প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও ডেইলী স্টারের রির্পোটার মহসিন মিলনের সভাপতিত্বে আজ বুধবার (১৯ মে) সকাল ১০.০০ টার সময় কাস্টম হাউস বেনাপোলের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠতি হয়। সমাবেশে শার্শা উপজলার কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদকর্মী ও সাংবাদিক নেতারা অংশ নেন।

সমাবেশ বক্তব্য রাখেন বার্তাকন্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার প্রভাষক মামুনুর রশিদ, বাগআচড়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি শেখ ইন্তাজুর রহমান মুকুল, এশিয়ান টিভির মিলন খান, এসএ টিভির শেখ নাছির উদ্দিন, লোকসমাজের মনিরুল ইসলাম মনি, একাওর টিভির মুসলিম উদ্দিন পাপ্পু , দৈনিক যুগান্তরের কামাল হোসেন, দৈনিক সংবাদের দেবুল কুমার দাস, দৈনিক ভোরের কাগজের ইয়ানুর রহমান, গ্রামের সংবাদের সম্পাদক এম এ মুন্নাফ খোকন, এটিএন বাংলার আহমদ আলী শাহীন, চ্যানেল আই ও সমকালের সাজেদুর রহমান, নিউজ টুয়েন্টি ফোর টিভি ও বাংলাদেশ প্রতিদিনের বকুল মাহবুব, বেনাপোল প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম আর রহমান রাশু।

আরও উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক ফারুক হাসান, জহিরুল ইসলাম রিপন, সেলিম রেজা, মশিয়ার রহমান, নজরুল ইসলাম, আবু রায়হান জিকো, আওরঙ্গজেব, রায়হান সোবহান, সম্রাট অকবর, মোঃ জসীম উদ্দীন, জয়নাল আবেদীন, টিটু মিলন, পলাশ হোসেন প্রমূখ।

বক্তারা বলেন, যেভাবে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে সচিবালয়ে আটকে রেখে হেনস্তা করা হয়েছে, তা মুক্ত গণমাধ্যম ও সাংবাদিকতার জন্য হুমকি। তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা অবিলম্বে প্রত্যাহার করে তাঁকে নিঃশর্ত মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান সাংবাদিকনেতারা। সাংবাদিকনেতারা আরও বলেন, একের পর এক দুর্নীতির ঘটনা তুলে ধরার কারণে রোজিনা ইসলাম স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রোষানলে পড়েন। পরিকল্পিতভাবে তাঁকে ফাঁসানোর জন্য হেনস্তা করে এই মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে।