স্টাফ রিপোর্টারঃ সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ১৩ নং ওয়ার্ডে নির্বাচন চলাকালীন সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বেলা আনুমানিক ২.১৫ ঘটিকায় সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার চর রায়পুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোট কেন্দ্রের গেটে মোঃ আনসার আলীর ছেলে মোঃ লিমন (৩০), একই এলাকার বিন্দু মাস্টারের ছেলে মোঃ শিমুল (৩৫), মোঃ শাওন (৩২), মোঃ পলাশ (৪০), মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে মোঃ মানিক (বড়), মোঃ শফিউল্লাহার ছেলে মোঃ মানিক (ছোট),  মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে মোঃ জামাত আলী (৫০), সর্ব সাং চর রায়পুর থানা ও জেলা সিরাজগঞ্জ।

উক্ত সন্ত্রাসী বাহিনী পূর্বপরিকল্পিত ভাবে সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ১৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মোঃ ময়দান আলী খান উট পাখি প্রতীকে নির্বাচন করেন। এসময় সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ১৩ নং ওয়ার্ডের চর রায়পুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট কেন্দ্রের গেটে ১ নং আসামি লিমন তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে দেশিও অস্ত্র সস্র নিয়ে হামলা করে এতে গুরুতরভাবে আহত হয় সিরাজগঞ্জ পৌর ছাত্র লীগের প্রচার সম্পাদক সেলিম খান। এলাকাবাসী জানান, লিমন আসলেই সেলিম খানকে হত্যার উদ্দেশ্যে এই ঘটনা ঘটায়,সাথে সাথে এলাকার লোকজন সেলিম খানকে আহত অবস্থায় সিরাজগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন, সেলিমের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় ডাক্তারের পরামর্শে ঢাকা বক্ষব্যাধি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অপারেশন করে বর্তমানে মুমূর্ষু অবস্থায় ঢাকা বক্ষব্যাধি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে।

এলাকাবাসী আরো বলেন ঔ দিন শুধু সেলিম খানের উপর হামলা করেনি সাথে সাথে সিরাজগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী ময়দান আলী খানকেও হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করে সন্ত্রাসী বাহিনী কিন্তু এলাকাবাসীর সহোযোগিতায় তিনি প্রাণে বেঁচে যান। উক্ত সময় উপস্থিত ছিলেন মৃত সেকেন্দার আলী খানের ছেলে মোঃ চান্দু আলী খান, আজগর আলী শেখের ছেলে মোঃ ওলিউল্লাহ,  মোঃ এনামুলের স্ত্রী মোছাঃ সাবিনা খাতুন। এব্যাপারে এলাকাবাসী দোষিদের আইনের আওতায় আনার আহবান জানান।