চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সাধারণ মানুষ অনেক প্রত্যাশা নিয়ে সরকারি অফিসগুলোতে আসে। প্রতিটি সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারীর দায়িত্ব হচ্ছে- তাদের সঠিকভাবে সেবা প্রদান করা। সেবাপ্রত্যাশী জনগণ যেন কোনো ধরনের দুর্ব্যবহারের সম্মুখীন না হন সে বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে। এই পদে থেকে জনগণকে আন্তরিকভাবে সেবা করার অনেক সুযোগ রয়েছে। সেই সুযোগ কাজে লাগাতে হবে। সেবাপ্রত্যাশীদের সম্মানের সঙ্গে সেবা প্রদান করতে হবে। সততা, ব্যক্তিত্ব, মানুষের প্রতি আন্তরিকতার সঙ্গে জনগণকে সেবা প্রদান করলে, সেই কার্যক্রম তাকে অনন্য স্থানে নিয়ে যাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সকল সেবা জনগনের কাছে পৌছে দিতে প্রতিটি সরকারি কর্মকর্তা- কর্মচারীকে নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করতে হবে। বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর ) দুপুর ১২ টায় উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় হতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের জন্য নির্মিত ঘরের চাবি প্রদান এবং বিশেষ প্রণোদনা বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিভাগীয় কমিশনার মো: মশিউর রহমান উপরোক্ত কথা বলেন। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান এর সভাপতিত্বে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ মাসুদ রানার সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আবিদা খাতুন,পৌর মেয়র মো: নাজিম উদ্দিন সামছু, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ -পরিচালক মো: তমিজ উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সত্যজিত রায় দাশ । অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন- অতি: জেলা প্রশাসক( রাজস্ব) তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়া, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিলটন চন্দ্র পাল, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: জালাল উদ্দিন সরকার, সমাজ সেবা কর্মকর্তা বারীন্দ্র রায়, উপজেলা প্রকৌশলী মিশুক কুমার দত্ত, পিআইও প্লাবন পাল, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফাহমিদা ইয়াসমিন, সমবায় কর্মকর্তা মো: ইমরানুর হক, চুনারুঘাট থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) চম্পক দাম, প্রেসক্লাব সভাপতি মো: কামরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি মো: জাহাঙ্গীর আলম,
যুগ্ন- সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বাচ্ছু,
রিপোর্টাস ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক 
মো: আবুল কালাম আজাদ,তথ্য সেবা কর্মকর্তা সোনালী রায় প্রমুখ। আলোচনা শেষে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয় হতে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের জন্য নির্মিত ১০টি ঘরের চাবি ও জাতীয় সমাজ কল্যাণ থেকে চা শ্রমিকদের মধ্যে নির্মিত ৪টি ঘরের চাবি হস্তান্ত করেন। এছাড়াও ভিক্ষুক পুনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থানের জন্য ৩৬টি সেলাই মেশিন, ২৫ জন সফল কৃষি উদ্যোক্তাকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। একইসাথে ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তাদের কোভিড ১৯- উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে বিশেষ প্রণোদনা উপহার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি। এদিকে সন্ধ্যার শানখলা ইউনিয়নের, আশ্রয়ন ২ – প্রকল্পের আওতায় পানছড়ি আশ্রয়ণের পুড়ে যাওয়া ৪৩ নং ব্যারাকের পূর্ণ নির্মিত ব্যারাকের উদ্বোধন ও ইকু রিসোর্টে মাল্টা চারা (বৃক্ষরোপন) করেন। উপজেলার বিভিন্ন কার্যক্রম দেখে তিনি সন্তোষ প্রকাশ করে প্রকল্পের সবগুলো ঘর সুন্দরভাবে নির্মাণ সম্পন্ন করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসারসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এছাড়া উপজেলায় চলমান বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন ও বিভিন্ন কাজের অগ্রগতি সম্পর্কে খোঁজখবর নেন। উপজেলায় সন্ধায় পানছড়ি ঘর উদ্বোধনের মাধ্যমে তাঁর দিনব্যাপী কর্মসূচির সমাপ্তি হয়। সাথে ছিলেন- জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সত্যজিত রায় দাশ, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিলটন চন্দ্র পাল, কৃষি কর্মকর্তা মো: জালাল উদ্দিন সরকার, উপজেলা প্রকৌশলী মিশুক কুমার দত্ত, পিআইও প্লাবন পাল, সমবায় কর্মকর্তা এমরানুল হক, শানখলা ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান তরফদার সবুজ, মো: তাউছ মিয়া, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মনির হোসেন জমদ্দার, তহসিলদার ইউনুছ আলী, মো: মনির হোসেন প্রমুখ। এ সময় বিভাগীয় কমিশনার মহোদয়কে ব্যস্ততার মধ্যেও চুনারুঘাট উপজেলায় দিনব্যাপী কর্মসূচি রাখার জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়।