আল-আমিনঃ ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ড উপজেলার তাহেরহুদা গ্রামের বকুল (৫০) সাপে কেটে মারা যান। তিনি ঐ গ্রামের মৃত আফিল উদ্দিন মন্ডলের মেঝো ছেলে। শুক্রবার দুপুর ১২.৩০ মিনিটের দিকে পানের ক্ষেত (বরজে) কাজ করতে গেলে তাকে সাপে কাটে। স্থানীয় ওঁঝার ঝাঁড়-ফুঁক ব্যর্থ হলে পরে তাকে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। এবং কর্তব্যরত চিকিৎসক বিকাল ৪.৩০মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাপ ও সাপে কাটা রোগী বিশেষজ্ঞ জনাব, আব্দুল্লাহ মারুফ জানান, মৃত বকুলকে খৈয়া গোখরায় কেটেছে। তিনি বলেন, রোগীর মধ্যে নিউরোটক্সিনের সব ধরনের লক্ষণ দেখা গেছে। সাপে কাটার এক থেকে দেড় ঘন্টার মধ্যে যে কোন সদর হাসপাতাল ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সাপে কাটা রোগীর জীবন বাঁচান সম্ভব বলে তিনি অভিমত প্রকাশ করেন।