মোস্তাফিজুর রহমান লালমনিরহাট প্রতিনিধিঃ বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও লালমনিরহাট জেলা বিএনপির অন্যতম সদস্য এবং হাতীবান্ধা-পাটগ্রাম ধানের শীর্ষের প্রার্থী ব্যারিস্টার হাসান রাজিব প্রধান। সাবেক প্রধান মন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদাজিয়া ও  ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানের নির্দেশক্রমে৷ লালমনিরহাট-১(হাতিবান্ধা -পাটগ্রাম) আসন নির্বাচনী এলাকার দুই উপজেলার ২০টি ইউনিয়ন ও ১ টি পৌরসভায় তিনি নিজ উদ্যোগে এবং ব্যাক্তিগত অর্থায়নে ৫৫০০ পরিবারের মাঝে চাল,তেল,আলু,সাবান,ডাল,খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন। বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারি আকার ধারণ করেছে।বাংলাদেশ সংক্রমণ হার প্রতিদিন বেড়েই চলছে।মৃত্যুও ঘটছে প্রতিদিন। করোনাভাইরাস থেকে জনগনকে মুক্ত রাখতে এবং সংক্রমণ হার নিয়ন্ত্রণ রাখতে দেশের বিভন্ন জেলাগুলোকে লকডাউন ঘোষনা করে স্থানীয় প্রসাশন। অসহায় দরিদ্র  সকল মানূষের মুখে সামান্য দূমুঠো খাবার তুলে দিতে কাজ করছেন  ব্যারিস্টার  হাসান রাজীব  প্রধান। তার খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন হাতীবান্ধা ও পাটগ্রাম উপজেলার  স্ব স্ব ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি,সম্পাদকও সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।এ বিষয়ে ব্যারিস্টা হাসান রাজিব প্রধান, প্রতিনিধিকে জানান আমার নির্বাচনী এলাকা দারিদ্র্যের হার বেশি এই দুর্যোগ মুহূর্তে তাদের পাশে দারানো আমার নৈতিক দায়িত্ব তাদের চিন্তায় যেটুকু পাচ্ছি সাথে থাকার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছি।  ঈদ এর আনন্দ মলিন না হয় সে চেষ্টা আমি করব এছাড়া খাদ্যসামগ্রী বিতরণ যাহা চলমান থাকবে বলে নিশ্চিত করেন।এছাও তিনি জেলার যে তার কাছে মামলা, চিকিৎসা, শিক্ষিত বেকারদের কর্ম,গরীব ছাত্রছাত্রী দের সাহায়্যের মহামানবের মত কাজ করে যাচ্ছেন৷ মাদ্রাসা, মসজিদ, মন্দির বিভিন্ন সামাজিক ও মানবিক প্রতিষ্ঠানে অকাতরে সাহায্য করে চলেছেন। সবসময় মানুষের সাথে যোগাযোগ ,খোঁজ খবর প্রতিনিয়িত তার রুটিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। টংভাঙ্গা ইউনিয়নেে  ফজর আলী, আকবর হোসেন,জনান,এই ধরনের জনদরদী দানশীল সদাহাস্যজ্ব বিনয়ী নেতা পেয়ে মাথা উচুকরে বেঁচে থাকার অবলম্বন পেয়েছি আমরা তার জন্য দোয়া করি সবসময়।