নিজস্ব প্রতিবেদকঃ জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) আগামী ২৬ শে মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রকাশের লক্ষ্যে উপজেলা/মহানগর পর্যায়ের যাচাই-বাছাই প্রতিবেদন আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

আহ রবিবার (১৪ মার্চ) জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করেছেন। বাংলাদেশের সব জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও সব উপেজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাদের তথ্য পাঠাতে এই নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

জারিকৃত আদেশে অনুযায়ী জানা যায়, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের সুপারিশবিহীন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বেসামরিক গেজেট নিয়মিত করতে গত গত ৩০ জানুয়ারি ও ৬ ফেব্রুয়ারি দেশব্যাপী  উপজেলা/মহানগর পর্যায়ে যাচাই-বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে। কিন্তু ওই যাচাই-বাছাইয়ের প্রতিবেদন নির্ধারিত ছকে যাচাই-বাছাই সম্পন্ন হওয়ার অনধিক তিন কর্মদিবসের মধ্যে পাঠানোর নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও অদ্যাবধি অনেক উপজেলা থেকে প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি বলে জানা গেছে ; যা দুঃখজনক এবং প্রতিবেদন না পাওয়ার কারণে একদিকে যেমন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বেসামরিক গেজেট নিয়মিতকরণ কার্যক্রম বিলম্বিত হচ্ছে। তেমনি অপরদিকে উপজেলা পর্যায়ে নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগ উত্থাপিত হচ্ছে। এটি কোনোক্রমেই কাম্য নয় এবং আগামী ২৬ শে মার্চ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রকাশে সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে।

জারিকৃত আদেশের চিঠি পাওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নির্ধারিত ছকে জামুকায় ইমেইলে (dg@jamuka.gov.bd) প্রতিবেদনের পিডিএফ অথবা ডকুমেন্ট ফাইল অথবা হার্ড কপি পত্রবাহক মারফত পাঠানোর নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, আগামী ২৬ শে মার্চ মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রকাশ করার কথা রয়েছে। যদিও ২০১৭ সালের জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া যাচাই-বাছাই প্রতিবেদন নিয়ে আপিল আবেদনের অনেকগুলোই শেষ হয়নি এখনও।