নিজস্ব প্রতিবেদক : আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ। ১৯৭১ সালের এই দিনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) ১৯ মিনিটের এক জাদুকরি ভাষণে বাঙালি জাতিকে স্বপ্নে বিভোর করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। এরপরই সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ, ৯ মাসের লড়াই এবং মহান স্বাধীনতা অর্জিত হয়।

১৯৭১ সালের এই দিনে মুক্তিকামী বাঙালি জাতিকে মুক্তির বাণী শুনিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান৷ ৭ই মার্চের সেই ভাষণেরই সফল পরিণতি স্বাধীন বাংলাদেশ৷ ৪৮ বছরেও ১৮ মিনিটের সেই অমর কবিতার আবেদন এতটুকু কমেনি। শিক্ষার্থীদের সেই ঐতিহাসিক গল্প শোনাচ্ছেন মুক্তিযুদ্ধের সৈনিক সোলায়মান হক জোয়াদ্দার সেুলন এমপি।

এই দিনটিকে স্মরণ করে রাখার জন্য চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকাল ১০ টায় চুয়াডাঙ্গা কালেক্টরেট স্কুল মাঠে শতকন্ঠে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ পরিবেশন করা হয়।

‘স্বাধীনতা, এই শব্দটি কিভাবে আমাদের হলো’- নির্মলেন্দু গুণের মতো সেটি ছাত্র-ছাত্রীদের জানালেন এমপি মহোদয়ের সঙ্গে অনুষ্ঠানের উদ্যোক্তা জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস এবং পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন চুয়াডাঙ্গা সদরের এমপি, সাবেক হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার সেলুন, জেলা প্রশাসক গোপাল চন্দ্র দাস, পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম প্রমুখ।