নিজস্ব প্রতিবেদক : নানান আলোচনা-সমালোচনার মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু নির্বাচন। এতে ভিপি পদে জয় পেয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুরু। তিনি পেয়েছেন ১১ হাজার ৬২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছাত্রলীগ সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন পেয়েছেন ৯ হাজার ১২৯ ভোট।

এছাড়া সাধারণ সম্পাদক (জিএস) পদে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ও সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) পদে ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন নির্বাচিত হয়েছেন।

এ নিয়ে ক্যাম্পাসে কাল ভোররাত থকেই বিরাজ করছে তীব্র উত্তেজনা সকাল থেকে চলছি ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া। ভিসি বাসভবন ঘেরাও করে রেখেছিল ছাত্রলীগ। তারা ভিপি পদে পুননির্বাচন চায়। অন্যদিকে রাজু ভাস্কর্যের সামনে বিক্ষোভে অংশ নেয় অন্যান্য প্যানেলের প্রার্থীরা। তারা ঘোষণা দেয় ভিপি পদ ছাড়া বাকিগুলোতে পুননির্বাচন দিতে হবে। এ সময় ক্যাম্পাসের ছাত্রলীগের ধাওয়ার শিকার হন নব নির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুরও।

তবে বিকালে ছাত্রলীগ সভাপতি ও ভিপি পদে পরাজতি হওয়া রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ঘোষণা দিলেন নুরকে ভিপি হিসেবে মেনে নিয়েছে তারা। ছাত্রলীগ সবাইকে নিয়ে কাজ করবে বলে ঘোষণা দেন তিনি।

এরপরই নুরের সঙ্গে বৈঠক করেন শোভন। সেখানে তিনি শিক্ষার্থীদের বলেন, নুরু আমাদের ভিপি। এখন সবাইকে দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে। এবং তাকে সর্বাত্মক সহযোগীতা করতে হবে।

এর আগে শোভন বলেন, ‘ভোটাররা ভিপি পদে নুরুল হক নূরকে বেছে নিয়েছেন। তাদের রায়ের প্রতি আমি সম্মান জানাচ্ছি। তার সঙ্গে আছি, তাকে নিয়েই শিক্ষার্থীদের যে কোনো অধিকার আদায়ে কাজ করব।’

তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগ দেশের সবচেয়ে বড় সংগঠন। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ নষ্ট করতে চাই না। ডাকসু নির্বাচন যারা পরিচালনা করেছেন, তারা আমাদেরই শিক্ষক। তাদের প্রতি সম্মান দেখিয়ে আমি আমার পরাজয় মেনে নিচ্ছি। তারা যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন, মাথা পেতে নিচ্ছি।’

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের নির্দেশের পাঁচ মিনিটে মধ্যই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনের সামনে (ভিসি চত্বর) থেকে চলে সরে গেছেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।