ডেস্ক : বার্সেলোনা ভক্তরা এখন মজা করে বলতেই পারেন- অ্যাথলেটিকোকে হারানো এক মিনিটের কাজ! কিংবা বার্সার দিনে জয় কেবল এক মিনিটের ব্যাপার। মেসি-সুয়ারেজ সেটাই করে দেখিয়েছেন। মাত্র এক মিনিটের ব্যবধানে ২-০ গোলে জয় এনে দিয়েছেন বার্সাকে। সেরেছেন চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রস্তুতি। কার্যত ছুঁয়ে ফেলেছেন লা লিগার শিরোপাও।

‘অ্যাথলেটিকো বন্দুকের শেষ ‍গুলি ছুড়বে।’ ম্যাচের আগে হুঙ্কার ছেড়েছিলেন অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ কোচ ডিয়াগো সিমিওনের শিষ্য কোকে। তারা গুলি ছুড়েও ছিল। কিন্তু তা বার্সাকে বিদ্ধ করেনি। উল্টো ম্যাচের শেষ সময়ে বার্সা তারকা মেসি-সুয়ারেজের ছোড়া দুই গুলিতে বধ হয়েছে অ্যাথলেটিকো।

লিগে এর আগের ম্যাচেও শেষ সময়ে দারুণ দুই গোল করেন মেসি এবং সুয়ারেজ। ভিয়ারিয়ালের বিপক্ষে ম্যাচের ৯০ এবং ৯৪ মিনিটে গোল করে দলকে (৪-৪ সমতা) হারের লজ্জা থেকে বাঁচান তারা। আর লিগ টেবিলে দুইয়ে থাকা অ্যাথলেটিকোর বিপক্ষে তাদের শেষ সময়ের ভেলকিতে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে এরনেস্তো ভালভার্দের শিষ্যরা।

প্রথমার্ধে গোল শূন্য সমতা নিয়ে বিরতিতে যায় দু’দল। দু’দলই লড়েছে প্রায় সমানে সমান। কিন্তু ধাক্কা যা খাওয়ার প্রথমার্ধেই খায় অ্যাথলেটিকো। ম্যাচের ২৮ মিনিটে স্পেন এবং অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের ‘ব্যাড বয়’ ডিয়াগো কস্তা লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। ম্যাচ রেফারির সঙ্গে তর্কে জড়িয়ে মাঠ ছাড়তে হয় সাবেক চেলসি স্ট্রাইকারকে। সেই ধাক্কা প্রথমার্ধে ভালোভাবেই সামলান সিমিওনের শিষ্যরা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে আর মেসিদের রুখতে পারেনি তারা।

বাধা হয়ে দাঁড়িয়ে ছিলেন কেবল অ্যাথলেটিকো গোলরক্ষক জ্যান ওব্লাক। তিনি প্রথমার্ধে দারুণ এক সেভ করেন। দ্বিতীয়ার্ধে মেসিকে দু’বার গোল বঞ্চিত করেন। এছাড়া বার্সার আরও কিছু আক্রমণ তার দেয়ালে বেধে ফিরে আসে। কিন্তু ম্যাচের ৮৫ মিনিটে আর রুখতে পারেননি লুইস সুয়ারেজকে। উরুগুয়ে স্ট্রাইকারের গোলই বার্সার জয়ের জন্য যথেষ্ঠ ছিল।

কিন্তু তার এক মিনিট পরেই আরেক গুলি ছোলেন বার্সা তারকা মেসি। তার ৮৬ মিনিটের গোলে ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সা। এ জয়ে লিগে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা অ্যাথলেটিকোর চেয়ে ১১ পয়েন্ট এগিয়ে গেল তারা। কার্যত লিগ শিরোপাই জিতে নিলেন মেসিরা।