সকাল ১০টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির হাতে ফলের অনুলিপি তুলে দেওয়া হয় -সমকাল

নিজস্ব প্রতিবেদক : ২০১৯ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়েছে।

সোমবার সকাল ১০টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির হাতে ফলের অনুলিপি তুলে দেওয়া হয়।

এবারের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৮২.২০ শতাংশ। এর মধ্যে এএসসিতে পাসের হার ৮২.৮০ শতাংশ, মাদ্রাসায় ৮৩.০৩ শতাংশ ও কারিগরিতে ৭২.২৪ শতাংশ।

এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ১ লাখ ৫ হাজার ৫শ’ ৯৪ জন শিক্ষার্থী।

অন্যান্য বছর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে পরীক্ষার ফল তুলে দিতেন শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যানরা। এবার প্রধানমন্ত্রী দেশের বাইরে থাকায় তার অনুমতিক্রমে শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির হাতে ফলের অনুলিপি তুলে দেওয়া হয়।

গত কয়েক বছর ধরে পরীক্ষা শেষের ৬০ দিনের মধ্যে পাবলিক পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হচ্ছিল। এবার আগামী ৯ মে পরীক্ষা শেষের ৬০তম দিন পূর্ণ হবে। সে হিসাবে এবার তিন দিন আগেই ফল প্রকাশ করা হলো।

সারাদেশে গত ২ ফেব্রুয়ারি একযোগে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা শুরু হয়। এবার সবগুলো শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মোট ২১ লাখ ৩৫ হাজার ৩৩৩ জন শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশ নেয়। মোট পরীক্ষাকেন্দ্র ছিল ৩৪৯৭টি। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র ১০ লাখ ৭০ হাজার ৪৪১ এবং ছাত্রী ১০ লাখ ৬৪ হাজার ৮৯২ জন। এবার শুধু এসএসসিতে ১৭ লাখ ১০২ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। তাদের মধ্যে ছাত্রী ৮ লাখ ৭৭ হাজার ৪৪১ এবং ছাত্র ৮ লাখ ২২ হাজার ৬৬১ জন। ছাত্রের তুলনায় ছাত্রী ৫৪ হাজার ৭৮০ জন বেশি। আর দাখিলে মোট ৩ লাখ ১০ হাজার ১৭২ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়। এর মধ্যে ছাত্রী ১ লাখ ৫৮ হাজার ৬৮২ জন এবং ছাত্র ১ লাখ ৫১ হাজার ৪৯০ জন।

এবার এসএসসি ভোকেশনালে ছাত্রীর সংখ্যা অনেক কম। কারিগরি বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১ লাখ ২৫ হাজার ৫৯ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৯৬ হাজার ২৯০ এবং ছাত্রী ২৮ হাজার ৭৬৯ জন।

২০১৮ সালের তুলনায় ২০১৯ সালে এসএসসি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ১ লাখ ৩ হাজার ৪৩৪ জন। এ বছর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বেড়েছে ১৩১টি, কেন্দ্র বেড়েছে ৮৫টি। দেশের বাইরে সৌদি আরবের জেদ্দা, রিয়াদ, ত্রিপোলি, দোহা, আবুধাবি, দুবাই, বাহরাইন এবং ওমানে আটটি কেন্দ্রে ৪৩৪ জন পরীক্ষার্থী অংশ নেয়।