অনলাইন ডেস্ক : শারীরিক সম্পর্কে সাড়া না দেওয়ায় রেগে স্ত্রীকে খুন করার অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, শেষে নিজের যৌনাঙ্গ কেটে ফেলেছেন তিনি। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এই সময়’র প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরের সিদ্ধান্তনগরে এই ঘটনাটি ঘটে গতকাল শনিবার। অনোয়ারুল হাসান (২৪) নামের ওই যুবকের সঙ্গে এক বছর আগে বিয়ে হয় ওই তরুণীর। সুরাটে কর্মরত ছিলেন আনোয়ার। বাড়ি ফিরে স্ত্রীকে শারীরিক সম্পর্কের জন্য ডাকেন তিনি। কিন্তু রাজি না হওয়ায় প্রথমে শ্বাসরোধ করে স্ত্রীকে হত্যা করেন। পরে রাগ সংবরণ করতে না পেরে নিজের যৌনাঙ্গও কেটে ফেলেন ওই যুবক।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় আনোয়ারকে গোরক্ষপুরের বাবা রাঘব দাস মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের বাবা তার বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

প্রতিবেশীদের বরাত দিয়ে গোরক্ষপুর পুলিশ জানিয়েছে, গতকাল সকালে তারা আনোয়ারকে তার বাড়ির মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখেন। পরে তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

হাসপাতালে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আনোয়ার হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছের। তার স্ত্রীর বাবা একটি মামলা দায়ের করেছেন। তার অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে আনোয়ার ও তার বাড়ির লোকজন মেয়েকে বিভিন্ন সময় হেনস্তা করতেন।