এই আমার দেশ ডেক্স : শেখ হাসিনার কারাবন্দী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
নিজেদের মধ্যে চেয়ার ছোঁড়াছুড়ি না করে বরিশালের সমাবেশ শেষ করায় বিএনপিকে ধন্যবাদ জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, মনে রাখতে হবে আন্দোলন করে বেগম জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয়, আইনই একমাত্র পথ।

শুক্রবার দুপুর ১২টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির স্বাধীনতা হলে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত ‘গণতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার কারাবন্দী দিবস উপলক্ষে আলোচনা’ শীর্ষক সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

বরিশালে বিএনপির সভায় মীর্জা ফখরুলের দুটি মন্তব্যের জবাবে ড. হাছান বলেন, সুষ্ঠু ভোট হলে না কি আওয়ামী লীগ একটা ভোটও পাবে না- বিএনপি মহাসচিবের এ মন্তব্য তার মানসিক সুস্থতার পরিচায়ক নয়। আর উন্নয়নের নামে আওয়ামী লীগ পকেট ভারি করছে- একথা তাদের বেলায় প্রযোজ্য কারণ তারা সেটা করে দেশকে পরপর পাঁচবার দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন করেছেন। আর আওয়ামী লীগ দেশের যে উন্নয়ন করেছে, সেটা শুধু বিএনপির চোখে পড়ে না, কিন্তু সারা বিশ্বে তা আজ এক রোল মডেল।

এক-এগারো’র কথা স্মরণ করে এ সময় আওয়ামী লীগের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান বলেন, ২০০৭ সালের ১৬ জুলাই বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে নয়, বন্দী করা হয়েছিল দেশের গণতন্ত্রকে। সে সময় অনেক নেতা বেসুরে কথা বললেও দলের তৃণমূল কর্মীরা নেত্রীর ওপর বিশ্বাসে অটল ছিলেন। আওয়ামী লীগের আন্দোলনের কারণেই শেখ হাসিনার পাশাপাশি খালেদা জিয়াও মুক্তি পান। মানুষের অধিকার হরণের প্রতিবাদের কারণেই শেখ হাসিনাকে আটক করা হয় বলেই ১৬ জুলাই ‘গণতন্ত্র বন্দী দিবস’ বলে আখ্যা পাচ্ছে।

বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদের উপদেষ্টা এড. মোঃ জাহাঙ্গীর আলম খানের সভাপতিত্বে ও সিনিয়র সহ সভাপতি শেখ নওশের আলীর সঞ্চালনায় সভায় আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন। অন্যদের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, স্বাধীনতা পরিষদের সভাপতি মো. জিন্নাত আলী জিন্নাহ, সাধারণ সম্পাদক মো. শাহাদাত হোসেন টয়েল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আখতার হোসেন, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ।