ডেস্ক রিপোর্ট: সংখ্যালঘুদের নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশি নারী প্রিয়া সাহা যে তথ্য দিয়েছেন তা শুধু মিথ্যা ও বানোয়াটই নয়, এটি দেশবিরোধী ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের অংশ বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এ ব্যাপারে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় কাজ করছে।

শনিবার (২০ জুলাই) দুপুরে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) তে এক বিতর্ক প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। সহিংস উগ্রবাদ বিরোধী ছায়া সংসদ বিতর্ক প্রতিযোগীতার আয়োজন করে ডিবেট ফর ডেমোক্রেসি।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, তথ্য-প্রমাণ তদন্ত সাপেক্ষে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। বাংলাদেশের চলমান সব উন্নয়ন , গণতন্ত্র সার্বভৌমত্ব এবং অগ্রযাত্রাকে বাধাগ্রস্ত করতেই এমন বানোয়াট অভিযোগ তোলা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা রথযাত্রা, দুর্গাপূজাসহ হিন্দু সম্প্রদায়ের বিভিন্ন অনুষ্ঠান এবং বড়দিনে সবধরনের নিরাপত্তা দিয়ে থাকি। সংখ্যালঘুদের ওপর কেউ যেন নির্যাতন ও হামলা চালাত না পারে সেজন্য আমরা সবসময় তৎপর।

আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি, বাংলাদেশে কোন সংখ্যালঘুদের ওপর নির্যাতন চালিয়ে কারও জমি ছিনিয়ে নেয়ার মতো ঘটনা ঘটেনি।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, সহিংস উগ্রবাদ দমনে ধর্মীয়, পারিবারিক ও সামাজিক মূল্যবোধ গুরুত্বপূর্ণ। আর তা আমাদের দেশে আছে বলেই আমরা উগ্রবাদ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছি।

যে দেশে বেকারত্বসহ নানা সমস্যা আছে, সেখানে কিছু অপরাধ থাকবেই। তবে রাজধানীর অপরাধ অনেক নিয়ন্ত্রণে। এখন কোন ছিনতাই নেই, নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কারও কিছু নেই বলে জানান ডিএমপি কমিশনার।

ছায়া সংসদে অংশ নেয় ইউনিভার্সিটি অব সাউথ এশিয়া এবং দারুননাজাত সিদ্দিকিয়া কামিল মাদ্রাসা। এতে ইউনিভার্সিটি অব সাউথ এশিয়া চ্যাম্পিয়ন হয়।