নিজস্ব প্রতিবেদক : টি-টুয়েন্টিতে আটবারের দেখায় কখনোই জয়ের মুখ দেখেনি বাংলাদেশ। তবে কাগজে-কলমের হিসেব বাদ দিলে জয় থেকে খুব বেশি দূরেও ছিলনা টাইগাররা। বেশ কয়েকবার স্বপ্ন ভেঙেছে একেবারে কাছে গিয়ে। সেই পরাজয়ের বৃত্ত কাঁটাতে এবার তিন ম্যাচ টি-টুয়েন্টি সিরিজে অন্তত একটিতে জিততে হবে বাংলাদেশকে।

তবে বাস্তবিক অর্থে, ভারতের মাটিতে এই মুহুর্তে জয় পাওয়াটা হবে কিছুটা স্বপ্নের মতো। মাঠের বাইরের কাণ্ডে ছিন্নবিন্ন টিম বাংলাদেশের মাঠের লড়াইটাও ভালোভাবে হচ্ছেনা সেই বিশ্বকাপ থেকে। তবে দেশের ক্রিকেটকে স্থিতিশীল করতে আজকের ম্যাচে বাংলাদেশের জয় পাওয়াটা অত্যন্ত জরুরী।

সেক্ষেত্রে চমক দেখাতে হবে কাউকে। কারণ নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, দেশসেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল এবং পেসিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনকে ছাড়া ম্যাচের আগেই পিছিয়ে থাকবে টাইগাররা।

এক সাকিবের জায়গায় বাংলাদেশকে খেলাতে হবে দুইজনকে। উইকেট আর মাঠের কন্ডিশন বিবেচনায় ব্যাটিংয়ে সাকিবের তিন নম্বর পজিশনে দেখা যেতে পারে অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা ২০ বছরের তরুণ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ নাঈম শেখকে। তবে অভিজ্ঞতা আর রিস্ক না নেয়ার প্রবণতায় একাদশে থাকতে পারেন মোহাম্মদ মিঠুন।

বোলার সাকিবের শূন্যস্থান পূরণে একাদশে দেখা যেতে পারে আরাফাত সানিকে। একজন অতিরিক্ত স্পিনার খেলাতে চাইলে তাইজুলকে নিতে পারে টিম ম্যানেজমেন্ট। সেক্ষেত্রে মোস্তাফিজের পাশে পেস বোলিং ইউনিটে দেখা যেতে পারে আল আমিন কিংবা আবু হায়দার রনিকে।

সাকিব-তামিমের অভাব টের না পাওয়াতে অন্তত জ্বলে উঠতে হবে একজন তরুণকে। সেক্ষেত্রে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান আফিফ হোসেন কিংবা মাত্র এক টি-টুয়েন্টি খেলা লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লবকে খেলতে হবে সেরাটা। আফিফ কিছুটা পরীক্ষিত হলেও বিপ্লবের যোগ্যতা এখনো প্রশ্নবিদ্ধ।

ভারতে রওনা হবার এক দিন আগে আনুষ্ঠিকভাবে অধিনায়কত্ব পেয়েছেন মাহামুদউল্লাহ্। সাকিব বাদেও দলে নেই তামিম, সাইফউদ্দিন। মাহামুদউল্লাহ্’র নিজের পারফরমেন্সও সন্তোষজনক নয়। তবে এতকিছুর পরেও চাপ নিচ্ছেনা বলে জানান টাইগার অধিনায়ক।
আমি একে চাপ হিসেবে মানছি না। দলকে নেতৃত্ব দেওয়া আমার কাছে বড় সুযোগ। টি-টোয়েন্টি ও টেস্টে এর আগে বেশ কয়েকবার এটা করেছি, যখন সাকিব ছিল না। আমরা দল হিসেবে খেলব। আমাদের সব সুযোগ কাজে লাগাতে হবে এবং আমাদের ক্ষমতার সদ্ব্যবহার করতে হবে।
বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, আফিফ হোসেন, আরাফাত সানি, মোস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন এবং আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।