নিজস্ব প্রতিবেদক

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের অপসারণ দাবিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করার প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে। গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা ও বিকাল ৪টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশের পর পরই বিভিন্ন হল থেকে ছাত্রছাত্রীরা মিছিল নিয়ে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে তারা বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

এদিকে ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নিয়েছেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। ফলে আন্দোলনকারীদের ওপর আবার হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

দুর্নীতির অভিযোগে উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে গত সোমবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে তার বাসভবন ঘেরাও করে রাখেন ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীর। এরপর মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১১টায় উপাচার্য তার বাসায় অবরুদ্ধ হন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি উন্নয়ন প্রকল্পের দরপত্র ছিনতাইয়ের অভিযোগ ওঠে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। এরপর ঈদ সেলামির নামে দুই কোটি টাকা চাঁদা নেওয়ার অভিযোগ ওঠে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে। এ অবস্থায় গত ২৩ আগস্ট থেকে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একটি অংশ।

গত ১২ সেপ্টেম্বর আন্দোলনকারীদের সঙ্গে আলোচনায় বসে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। কিন্তু দুর্নীতি তদন্তের দাবি পূরণ না হওয়ায় ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে উপাচার্যের অপসারণের দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়।