ডেস্ক নিউজঃ ভয়ঙ্কর রকম বায়ুদূষণে ধুঁকছে দেশের ভারতের রাজধানী দিল্লি। সেই দূষণ পরিস্থিতি উপেক্ষা করেই গত রবিবার সেখানে নির্ধারিত ভারত-বাংলাদেশ প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি আয়োজন করা হয়। কিন্তু দেখা যায়, নয়া দিল্লিতে ম্যাচ চলাকালীনই মাঠের মধ্যে অসুস্থ বোধ করে বমি করতে শুরু করেন সৌম্য সরকার এবং আরও একজন বাংলাদেশের ক্রিকেটার।এমন তথ্য জানানো হয়েছে একাধিক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে।

দীপাবলির পর নয়া দিল্লিতে বায়ু দূষণের মাত্রা আরও অবনতি হয়েছে। তবু সেই প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেই প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি খেলানো হয়েছিল। তবে শুধু ভারতীয় দলের ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিংই নয়, বায়ুদূষণের মতো প্রতিকূল অবস্থার বিরুদ্ধে যুঝে সাত উইকেট ও তিন বল বাকি থাকতেই ওই টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি জিতে নেয় বাংলাদেশ।ম্যাচের পরে মুশফিকুর রহিম বলেছিলেন, ভারতে আসার পর থেকেই তাঁর দলের এখানকার আবহাওয়া পরিস্থিতির সঙ্গে লড়াই করতে হয়েছে যা অত্যন্ত অসুবিধাজনক। তবে মাঠে বমি করার তথ্য এর আগে প্রকাশিত হয়নি।

মুশফিকুর সাংবাদিকদের বলেন, “আমাদের খুব খারাপ পরিস্থিতির মধ্যেই খেলতে হয়েছিল। ভারতে এসে পৌঁছানোর মুহুর্ত থেকেই আমাদের অবস্থা খারাপ হয়ে যায়, তবু আমরা খারাপ আবহাওয়াজনিত পরিস্থিতির মোকাবিলা করেই ম্যাচের দিন নিজেদের উজাড় করে দিই”।

এদিকে, বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় দিল্লির দুঃসহ দূষণ পরিস্থিতির মধ্যেও টি-টোয়েন্টি খেলায় অংশ নেওয়ার জন্য উভয় দলকেই ধন্যবাদ জানান। তিনি টুইট করে জানান, ‘‘কঠিন পরিস্থিতিতে খেলায় অংশ নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ উভয় দলকেই। বাহবা বাংলাদেশকে।”দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচটি আগামী বৃহস্পতিবার রাজকোটের সৌরাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে খেলা হবে। তিন ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে থাকা বাংলাদেশকে রোখার জন্যে এবার সর্বশক্তি নিয়ে মরণপণ লড়াইয়ে নামতে চায় টিম ইন্ডিয়া।