শৈলকুপা(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধি: অবিলম্বে ঝিনাইদহের শৈলকুপা থানার ওসি বজলুর রহমানের প্রত্যাহার ও সাংবাদিকদের নামে মিথ্যা-ষড়যন্ত্রমুলক মামলা প্রত্যাহার দাবিতে আজ দুপুর ১টার দিকে শৈলকুপা প্রেসক্লাব প্রাঙ্গনে এক মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে সাংবাদিকদের টানা ৭দিনের আন্দোলন কর্মসূচী । আন্দোলনের প্রথম দিনে শৈলকুপা, ঝিনাইদহ, কালীগঞ্জ, কোটচাঁদপুর , মহেশপুর ও হরিনাকুন্ডু থেকে প্রেসক্লাব নেতৃবৃন্দ সহ অন্যান্য সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ শৈলকুপা প্রেসক্লাবে উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিকগন তাদের বক্তব্যে মিথ্যা ও হয়রানীমুলক মামলা এবং থানার নানা অনিয়মের প্রতিবাদ জানান । এছাড়া শৈলকুপার বিভিন্ন ভুক্তভোগীরা তাদের মামলা থানায় না নেওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন। এরা হলেন পৌর এলাকার পাঠানপাড়া গ্রামের গৃহবধু শারমিন, বাদালশো গ্রামের প্রমিলা বিশ^াস, শৈলকুপা বালিকা বিদ্যালয়ের এমএলএসএস শহিদুল ইসলাম প্রমুখ। প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের ৭দিনের ঘোষিত কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ, মানববন্ধন, স্বারকলিপি প্রদান, গনজিডি, কলম বিরতি, অনশন, মুখে কালো কাপড় প্রদর্শন, থানার ইতিবাচক সংবাদ বর্জন । এছাড়া ঘটনার প্রতিবাদে পরের সপ্তাহে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে স্বাক্ষাতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কোন প্রকার যাচাই-বাছায়, তদন্ত ছাড়াই ডিবিসি নিউজ চ্যানেলের ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি আব্দুর রহমান মিল্টন ও রামিম হাসানের নামে মিথ্যা অভিযোগ মামলা আকারে গ্রহণ করায় সাংবাদিকগন ও বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ এ মিথ্যা মামলা দায়েরের ঘটনায় শৈলকুপায় পুলিশের বিরুদ্ধে মানুষের ক্ষোভ ক্রমেই বাড়ছে। প্রেসক্লাবের সংবাদকর্মীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইফুল ইসলামের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেছে। একইসাথে প্রথম আলো পত্রিকার সম্পাদক মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে হয়রানি মুলক মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয় ।