জহির উদ্দিন মাহমুদ,লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ লক্ষ্মীপুরে নাছরিন আক্তার (৩৫) নামে এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে তার দেবরের বিরুদ্ধে। বুধবার (১৫ জানুয়ারি) ভোর রাতে সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জের পশ্চিম লতিফপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নাছরিন আক্তার ওই গ্রামের মো. প্রবাস ফেরত ফারুক হোসেনের স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী।

নিহতের স্বজন ও পুলিশ জানায়, ভোর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে বাইরে বের হলে আগ থেকে ওঁত পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা তার গলা কেটে আহত করে পালিয়ে যায়। পরে তার চিৎকারে স্বামী ও ছেলে এসে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক নাছরিনকে মৃত ঘোষণা করে।

নিহতের ছেলে নাইমুল ইসলাম, স্বামী ফারুক ও ভাই অভিযোগ করে বলেন, নাছরিনের দেবর সুমনের সঙ্গে টাকা লেনদেনের বিষয় নিয়ে বাক বিতন্ডা লেগেই থাকতো। টাকা না দেয়ার অপচেষ্টায় তাকে গলাকেটে হত্যা করে সুমন। ছুরিকাঘাতের পর মৃত্যুর আগে তার নাম বলে যায় বলেও জানান তারা।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন জানান, নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। পূর্ব শত্রুতার জেরে কিংবা অন্য কোনো কারণে তাঁকে হত্যা করা হয়েছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান ওসি।