স্পোর্টস ডেস্ক
পয়েন্ট তালিকার তলানির ক্লাব লেগানেস শুরুটা করেছিল দুর্দান্ত। স্প্যানিশ লা লিগার শীর্ষে থাকা বার্সেলোনাকে অবশ্য চমকে দেওয়া হয়নি তাদের। ধীরে ধীরে ম্যাচে ফেরা কাতালানরা আনসু ফাতি ও লিওনেল মেসির লক্ষ্যভেদে কাঙ্ক্ষিত জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে।

লম্বা সময় স্থগিত থাকা লা লিগা আবার চালু হওয়ার পর মঙ্গলবার রাতে প্রথমবারের মতো ঘরের মাঠে খেলতে নেমেছিল কিকে সেতিয়েনের দল। ন্যু ক্যাম্পে লেগানেসের বিপক্ষে তারা জিতেছে ২-০ গোলে।

তরুণ স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ফাতি প্রথমার্ধের শেষদিকে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের এগিয়ে নেন। দ্বিতীয়ার্ধে স্পট-কিক থেকে ব্যবধান বাড়ান আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মেসি।

ম্যাচের শুরুর দিকে পাঁচ পরিবর্তন নিয়ে খেলতে নামা বার্সেলোনার কঠিন পরীক্ষা নেয় লেগানেস। দ্বাদশ মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে রকি মেসার হেড থেকে বল পেয়ে শট নেন মিগেল অ্যাঙ্গেল গেররেরো। স্বাগতিক গোলরক্ষক মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনকে ফাঁকি দিয়ে জালের দিকে যাচ্ছিল বল। কিন্তু গোললাইন থেকে তা ফিরিয়ে দেন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলে জায়গা পাওয়া ফরাসি ডিফেন্ডার ক্লেমো লংলে।

দুই মিনিট পর আরও একটি সুযোগ পান স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড গেররেরো। ফের মেসার হেডে দুরূহ কোণ থেকে তার নেওয়া শট দূরের পোস্ট ছুঁয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

অল্প সময়ের মধ্যে দুবার বেঁচে যাওয়ার পর যেন হুঁশ ফেরে বার্সেলোনার! তারা নিজেদের গুছিয়ে নিয়ে লেগানেসের গোলমুখে একের পর এক আক্রমণ শুরু করে।

৩০তম মিনিটে ইভান রাকিতিচের দারুণ ক্রসে আন্তোয়ান গ্রিজমানের হেড লক্ষ্যে থাকেনি। ধারাবাহিক প্রচেষ্টার ফল ৪২তম মিনিটে পায় বার্সা। লেফট ব্যাক জুনিয়র ফিরপোর পাসে ডি-বক্সের ভেতরের প্রান্ত থেকে গড়ানো শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন ফাতি। দুই মিনিট পর মিনিটে সার্জি রবার্তোর ক্রসে মেসির হেড লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

বিরতির পর ম্যাচের ৫৪তম মিনিটে লেগানেসের বদলি ফরোয়ার্ড রজার আসালির শট সহজেই লুফে নেন টের স্টেগেন। ৬৩তম মিনিটে বদলি ডিফেন্ডার নেলসন সেমেদোর ক্রসে বাম পায়ের আলতো টোকায় অতিথিদের জালে বল জড়িয়েছিলেন ফরাসি ফরোয়ার্ড গ্রিজমান। তবে ভিএআর প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে গোলটি বাতিল করে দেন রেফারি।

সাত মিনিট পর ব্যবধান দ্বিগুণ করার পাশাপাশি জয় নিশ্চিত করেন মেসি। স্পট-কিক থেকে চলতি লিগে নিজের ২১তম গোলের দেখা পান তিনি। ২০১৯-২০ মৌসুমের গোলদাতাদের তালিকায় শীর্ষে আছেন বার্সেলোনা অধিনায়ক। তিনি ফাউলের শিকার হওয়াতেই পেনাল্টি পেয়েছিল বার্সেলোনা।

৮২তম গিদো কারিয়োর শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হলে ব্যবধান কমানো হয়নি লেগানেসের। ছয় মিনিট পর আর্তুরো ভিদালের বাড়ানো বলে রিকি পুজের নেওয়া শট রুখে দেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক ইভান কুয়েয়ার। ম্যাচের যোগ করা সময়ে লেগানেস কোচকে লাল কার্ড দেখান রেফারি।

২৯ ম্যাচে ২০ জয়, চার ড্র ও পাঁচ হারে ৬৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান মজবুত করেছে বার্সা। এক ম্যাচ কম খেলা রিয়াল মাদ্রিদ ৫৯ পয়েন্ট নিয়ে আছে তালিকার দ্বিতীয় স্থানে। স্পেনের সফলতম ক্লাবটি আগামী বৃহস্পতিবার রাতে ঘরের মাঠে ভ্যালেন্সিয়ার মুখোমুখি হবে।