মমিনুল ইসলাম মমিন, ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :ময়মনসিংহ ত্রিশাল উপজেলার ধানীখোলা গ্রামে বেড়ে উঠেছে কালো মানিক নামের ষাড় গরুটি। তার বয়স ৪ বৎসর উর্ধ। স্নেহ মায়ায় লালিত হয়েছে কালো মানিক।

জানাযায়, ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার ধানীখোলা গ্রামে জাকির হোসেন সুমন গরুর প্রতি ভালবাসা থেকেই শখ করেই গরু পালন করেন। গত বছর দুটি গুরু ছিলো একটি লাল রঙের হওয়ায় নাম রাখা হয় লাল মানিক আর এটি কালো হওয়ায় নাম হয় কালো মানিক। লাল মানিক গত বছর ১৩ লাখ টাকায় বিক্রি করেন জাকির হোসেন সুমন। গত বৎসর ময়মনসিংহের বৃহৎ গরু হিসেবে বিবেচিত হয় লাল মানিক। কালো মানিক মনের মত গ্রহক না পাওয়ায় অবিক্রিত রয়ে যায়। তাই এ বৎসর কুরবানী ঈদের জন্য তৈরী করা হচ্ছে ময়মনসিংহের বৃহৎ আকৃতির গরু কালো মনিককে। কালো মানিক কে দেখতে প্রায় প্রতিদিনই আশ পাশের উপজেলা ও জেলা থেকে ভীড় জমাচ্ছেন জাকির হোসেন সুমনের বাড়ীতে। কালো মানিক নামের গরুটি বৃহৎ আকৃতির হওয়ায় স্থানীয় ভাবে সকলেরই পরিচিত।

গরু মালিক জাকির হোসেন সুমন জানান, স্নেহ, মায়া ও ভালাবাসা দিয়ে লালিত করেছি কালো মানিককে। এবার কুরবানী ঈদে বিক্রির জন্য তৈরি করতে যাচ্ছি। তার সাথের গরু লাল মানিক কে গত বছর কোরবানীর ঈদে ১৩ লাখ টাকায় বিক্রি করেছি। লাল মানিকের চেয়ে কালো মানিক বয়সে বড় এবং দ্বিগুণ আকৃতির হওয়ায় আশা রাখি ২০ থেকে ২৫ লাখ টাকায় বিক্রি করতে পারবো। কালো মানিক কে খাবার হিসেবে গ্রাম্য উপায় ও পরিবেশে খৈল, ভূট্টা, ভুষি ও খড়-ঘাস খাওয়ানো হচ্ছে।

অগ্রহীগণের প্রয়োজনে, জাকির হোসেন সুমন, পিতা- জালাল উদ্দিন, গ্রাম- ধানীখোলা দক্ষিণ ভাটিপাড়া, থানা- ত্রিশাল, জেলা- ময়মনসিংহ। মোবাইল-০১৭১১৩৬০৯০১ # ০১৭৩৩৮৬৩৯৭৭ এ যোগাযোগ করতে পারেন।