বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের পরীক্ষার ভুয়া রিপোর্ট নিয়ে ইতালিতে তোলপাড়। দেশটির শীর্ষ জাতীয় পত্রিকা দৈনিক ইল মেসসাজ্জেরোরে গুরুত্ব সহকারে ছাপানো হয়, বাংলাদেশ থেকে ভুয়া করোনা সার্টিফিকেট নিয়ে ইতালিতে ফেরত যাওয়াদের নিয়ে।

প্রতিবেদনটিতে ঢাকায় করোনা সার্টিফিকেট জালিয়াতির চিত্র উঠে আসে। এতে বলা হয়, ফ্লাইটে চড়তে ঢাকায় সাড়ে ৩ হাজার থেকে ৫ হাজারের মধ্যে ভুয়া স্বাস্থ্যসনদ বিক্রি হচ্ছে।বাংলাদেশে এমন জালিয়াতির কারণে ইতালির লাজিওতে বাসকরা বাংলাদেশিদের ব্যাপক পরীক্ষার আওতায় আনা হয়েছে।এমনকি বুধবার রোম বিমানবন্দর থেকে ১৫২ বাংলাদেশিকে ফিরিয়েও দেয়া হয়েছে। কাতার এয়ারওয়েজের একটি ফ্লাইটে করে ইতালি যাওয়া ১৫২ বাংলাদেশিকে বিমান থেকে নামতে না দিয়ে ওই বিমানেই ফেরত পাঠানো হচ্ছে। এই যাত্রীরা বৃহস্পতিবার ঢাকায় ফিরে আসছেন।ঢাকা থেকে যাওয়া যাত্রীদের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ায় এক সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশ থেকে সব ধরনের ফ্লাইট বাতিল করে দিয়েছে ইতালি সরকার।বুধবার স্থানীয় সময় দুপুর ১টার দিকে রাজধানী রোমের ফিউমিসিনো বিমানবন্দরে ওই বিমানটি অবতরণ করে। বিমানটিতে থাকা বাংলাদেশি যাত্রীদের ইতালিতে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। তাদের কাতারে ফেরত পাঠানো হচ্ছে। কাতার থেকে বাংলাদেশে পাঠানো হবে। ইতালিয়ান সরকারের পূর্বঘোষিত নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে  তারা ইতালিতে প্রবেশ করতে চেয়েছিল। এর আগে অপর একটি ফ্লাইটের দুই ডজনের বেশি বাংলাদেশি আরোহীর শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হওয়ার পর বাংলাদেশের সঙ্গে বিমান চলাচল বন্ধ করে দেয় ইতালি।এখন বাংলাদেশিরা ইতালির প্রশাসন ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কড়া নজরদারিতে রয়েছেন। ঢাকা থেকে ফেরা প্রতি ৮ জনের একজন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হচ্ছে। গত তিন সপ্তাহে নতুন করে ৭৫ বাংলাদেশি সংক্রমিত হয়েছেন। এরমধ্যে গত একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৬ বাংলাদেশি। দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত মোতাবেক, আগামী এক সপ্তাহ ঢাকা থেকে ইতালিগামী সব ফ্লাইট সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত জানানো হবে।