বন্দর প্রতিনিধি: বন্দরে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে সন্ত্রাসী হামলায় বাড়ি ঘর ভাংচুর, লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই সময় সন্ত্রাসীদের বাধা দিতে গিয়ে র্নিমান শ্রমিকসহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছে। আহতরা হলো মাঃ মমিন(৩৭), মনির (২৫), শাওন (২৩), রমজান (৩০)। এলাকাবাসী আহতদের উদ্ধার করে বন্দর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করেছে। ১২ জুলাই (রোববার) সকাল ১০টায় বন্দর থানার বাড়িখালীস্থ উলাক এলাকায় এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনাটি ঘটে। ওই সময় সন্ত্রাসী কাউসারগং বহিরাগতদের নিয়ে মোজাম্মের হকের নির্মানাধীন দেয়াল ভেঙ্গে প্রায় ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিসাধন করে। এ ঘটনায় মোজাম্মেল হক বাদী হয়ে ঘটনার ওই দিন দুপুরে বন্দর থানায় সন্ত্রাসী কাউছার ও রাজিব গংদের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। জানা গেছে, র্দীঘ ২ বছর ধরে মোজাম্মেল হকদের সাথে বন্দর ইউনিয়নের ৬ নং ওর্য়াডস্থ বাড়িখালি এলাকায় বাড়ির জায়গা নিয়ে বিরোধ চলছে কাউসার ও রাজিবগংদের। যা নিয়ে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। উল্লেখিত জায়গায় একই এলাকার মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান মিয়ার ছেলে মোজাম্মেল হক বাউন্ডারী দেয়াল নির্মাণ কাজ করেছিল। এর জের ধরে ১২ জুলাই ( রোববার) সকাল ১০টায় করিম মিয়ার ছেলে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসী কাউসার, রাজিব, শান্তসহ অজ্ঞাত ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী ঘটনাস্থলে এসে র্নিমানকাজ কাজ বন্ধ করে দিয়ে দেয়াল ভাংচুর করে। ওই সময় হামলাকারিরা র্নিমান শ্রমিক মোঃ মমিন(৩৭), মনির (২৫), শাওন (২৩), রমজান (৩০)সহ ৮ জনকে পিটিয়ে শ্রমিকদের কাজের যন্ত্রপাতি ছিনিয়ে নেয়। দেয়াল ভাংচুর ও যন্ত্রপাতি ছিনিয়ে নেয়ায় ঘটনায় কমপক্ষে ৫০ হাজার টাকা ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে জানা গেছে। অভিযোগ পেয়ে বন্দর থানা পুলিশের উপ পরিদর্শক আবু হানিফ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।