এম হাসান মুসাঃ রান্না সহ বিয়ের পূর্ব প্রস্ততি সবই শেষ। অপেক্ষা শুধু বর পক্ষের আগমন। এরই মাঝে বাধসাধলেন এসিল্যান্ড। অল্প কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সহকারী কমিশনারের (ভূমি) হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেলো ১০ শ্রেনীর এক ছাত্রী। সেই সাথে অপ্রাপ্ত বয়সে বিয়ের আয়োজন করায় কনের বাবাকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট। ঘটনাটি সোমবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার রয়েড়া গ্রামে।

ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও এসিল্যান্ড পার্থ প্রতিম শীল জানান, গোপন সংবাদে জানতে পারি রয়েড়া গ্রামের মিন্টু(৪২) হোসেনের ১০ শ্রেনীর পড়ুয়া ছাত্রীর বাল্য বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টার দিকে কনের বাবার বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বিয়ে বন্ধের মুচলেকা নেওয়া হয়। সেই সাথে কনের বাবাকে বাল্য বিয়ের আয়োজন করার অপরাধে ভ্রাম্যমান আদালতে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।