নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের চরএলাহী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য কামাল উদ্দিনকে তুচ্ছ ঘটনায় লাঞ্ছিত করেছে কোম্পানীগঞ্জ থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ইয়ামিন মিয়া।সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুর ৩টার দিকে উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নের ব্রেইলি ব্রিজ সংলগ্ন সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক স্থানীয় এলাকাবাসীর মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।ভুক্তভোগী ইউপি সদস্য জানান, কোম্পানীগঞ্জ থানার (এএসআই) ইয়ামিন মিয়া সঙ্গীয় ফোর্সসহ দুপুর ১২টার দিকে থানার পূর্ব নির্ধারিত কাজে উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নের যায়। কাজ শেষে থানায় ফেরার পথে চরএলাহী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের ছেলে ইকবাল হোসেনের(২৬) মোটরসাইকেল আটক করে। এক পর্যায়ে কাগজ পত্র না থাকার অজুহাত দেখিয়ে তালবাহানা করে পাঁচ হাজার টাকা দাবি করে (এএসআই) ও তার সঙ্গীয় কনস্টেবল। পরে ওই পথ দিয়ে আমি যাওয়ার পথে সাবেক চেয়ারম্যানের ছেলে বিষয়টি আমাকে অবহিত করলে আমি (এএসআই) ইয়ামিন মিয়ার সাথে আমার পরিচয় দিয়ে মোটরসাইকেল আটক করার কারণ জিজ্ঞাসা করি। এক পর্যায়ে (এএসআই) ইয়ামিন আমার ওপর বেজায় ক্ষেপে গিয়ে আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করেন, ওই সময় (এএসআই) ইয়ামিন প্রত্যন্ত ওই অঞ্চলের একাধিক মোটরসাইকেল আটক করে টাকা নিয়ে মোটরসাইকেল ছেড়ে দেন।এ বিষয়ে উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ইয়ামিন মিয়ার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি দাবি করেন, ইউপি সদস্যের সাথে ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে।এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো.আরিফুর রহমান জানান, বিষয়টি আমি শুনেছি।এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।