নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর বেগমগন্জ উপজেলার চৌমুহনী পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক ও বিশিষ্ট ঠিকাদার ফয়েজ আহম্মদ সুমনের বাসায় হামলার সাথে জড়িত আসামীদের গ্রেফতারের দাবীতে মঙ্গলবার বিকালে করিমপুর সিঙ্গার রোডে বিক্ষোভ মিছিল ও ২৪ ঘন্টার মধ্যে আসামীদেরকে গ্রেফতার করার জন্য আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।মামলার বিবরণে উল্লেখ আছে, যুবলীগ নেতা, মৃত আবুল কালামের পুত্র বিশিষ্ট ঠিকাদার ফয়েজ আহম্মদ সুমনের বাসায় এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী বাহিনীর নেতৃত্বে একদল অস্ত্রধারী গত ৭ জুলাই রাত সাড়ে নয়টার দিকে জোসনা মঞ্জিলে হামলা চালিয়ে বাসায় ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়ে কয়েক লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন করে। এ সময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা সুমনকে না পেয়ে তাঁর মাতা জোসনা আক্তার (৫৮), মোক্তার আহম্মদ (৩৫), মোঃ শাকিব (২৪) কে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুারুতর আহত করে। তন্মমধ্যে জোসনা আক্তারকে বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে ভর্তি করা হয়। তিনি এখনো চিকিৎসাধীন আছে। এ ঘটনার ব্যাপারে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় ফয়েজ আহম্মদ সুমন বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করা হলে ও এখনো কোন আসামি গ্রেফতার হয়নি।এর প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিকেলে চৌমুহনী করিমপুর সিঙ্গার রোডে সুমনের পক্ষে এক বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এ সময় চৌমুহনী পৌরসভার মেয়র পদপ্রার্থী ও যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সাধারণ সম্পাদক বিশিষ্ট শিল্পপতি সিরাজুল ইসলাম স্বপন সহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছা সেবকলীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। পরে তারা ক্ষতিগ্রস্থ বাসাতে পরিদর্শন শেষে আসামীদের গ্রেফতারের জোর দাবী জানায়। বেগমগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ হারুনুর রশিদ চৌধুরীর নির্দেশে একদল পুলিশ আইনশৃংঙ্খলা নিয়ন্ত্রন ও আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চালিয়ে আসছে বলে পুলিশ জানায়।