শংকর শীল, চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) :
হবিগঞ্জের  চুনারুঘাটে  মাদকের গ্রাস থেকে যুব সমাজকে বাঁচাতে পবিত্র কোরআন শরিফ ও গীতা হাতে নিয়ে মাদকের বিরুদ্ধে শপথ গ্রহণ করেছেন থানা পুলিশ। বুধবার (১৫ জুলাই) রাতে থানা প্রাঙ্গনে পুলিশ সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান মাধবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. নাজিম উদ্দিন। এ শপথবাক্য পাঠের মধ্য দিয়ে চুনারুঘাট থানা পুলিশ মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে। মাধবপুর সার্কেলের এএসপি মো: নাজিম উদ্দিন বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মাদকের বিরুদ্ধে যেমন জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেন তেমনই মাননীয় আইজিপি স্যারও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। তিনি বলেন, মাদক কারবারি ও মাদকের দালালদের ছাড়িয়ে নিতে যারা তদবির করে তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে। সেই অনুযায়ী অভিযান চলছে। পর্যায়ক্রমে সকল মাদক কারবারিদের বিচারের আওতায় আনা হবে। মাদককে কোনোভাবে ছাড় দেওয়া হবে না। ওসি শেখ নাজমুল হক বলেন, আমি চুনারুঘাটে যোগদানের পর প্রথম প্রতিজ্ঞাই ছিল মাদক নির্মূল করা এরই ধারাবাহিকতায় আমি কাজ করে যাচ্ছি এপর্যন্ত মাদক কারবারি শতাধিক লোক ধরে কারাগারে প্রেরণ করেছি।  মামলা হয়েছে প্রায় দুইশতাধিক। আমার স্লোগান একটাই  হয় মাদক ব্যবসায়ী থাকবে নতুবা আমি থাকব! হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা স্যারের নির্দেশে আমাদের অফিসার ফোর্সদের নিয়ে শপথের পাশাপাশি কঠোর প্রদক্ষেপ নিয়েছি। অনেকেই রয়েছেন একটি আসামী ধরলে ছাড়িয়ে নিতে অনেক তদবির করেন। তাদের এমন কর্মকান্ডে  আমরা বিব্রতবোধ করি। আমরা কাউকে ছাড়দেবনা।  তাদের বিরুদ্ধেও এবার কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। ইতিমধ্যে  আসামীদের ছাড়িয়ে নিতে যারা তদবির করেছেন তাদের রেহাই নেই। আমরা প্রত্যক মাদক কারবারি ও মাদকের দালালদের তালিকা তৈরী করেছি। মাদক নির্মূলের জন্য একটি সঠিক তালিকা তৈরি করা হবে । অভিযানে সমাজের সকল স্তরের মানুষের সহযোগিতা থাকবে ৷ আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞা নিয়ে মাঠে নেমেছি। চুনারুঘাটকে মাদক মুক্ত করবোই। এজন্য তিনি সকলের সহযোগীতা কামনা করছেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন থানার পরিদর্শক (তদন্ত) চম্পক দামসহ সকল সদস্যবৃন্দ