মোঃ জয়নাল আবেদীন টুক্কুঃ রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের তুলাতলী গ্রামের সেই আলোচিত মনির আহমদকে ৪৮ ঘন্টা পর জীবিত অবস্থায় ফিরলেন বাড়ীতে।  বিষয়টি নিয়ে পরিবার ও এলাকাবাসীর মাঝে ফিরে এসেছে স্বস্তি। রামু থানার অফিসার ইনচার্জ অভিজ্ঞ শৌকচ পুলিশ কর্মকর্তা মোঃ  আবুল খায়ের ও গর্জনিয়া পুলিশ ফাড়ীর আইসি আনিসুর রহমানের বিচক্ষনতায় এস আই হুমায়ুন কবিরের অক্লান্ত পরিশ্রম এবং সাংবাদিকদের লেখনি, এলাকাবাসীর দোয়ায় নিখোঁজ  মনির আহমদ কে শুক্রবার (১৭ জুলাই) ভোর ৬ টায় রামুর রাবার বাগান থেকে  উদ্ধার করে পুলিশ । উল্লেখ্য , কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের তুলাতলী গ্রামে গত ৬ মাস আগে পুরুষাঙ্গ কাটা সে আলোচিত মনির আহমদ (৪৫) মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) ভোর সাড়ে ৪ টা থেকে নিজ বাড়ী হইতে নিখোঁজ হয়। সে ডাকভাঙ্গা গ্রামের মৃত গোলাম কাদেরের ছেলে। পেশায় একজন কৃষক। 
শুক্রবার (১৭ জুলাই) ভোর ৬টার দিকে রামু রাবার বাগান রাস্তার পাশ থেকে হাত পা বাধা অবস্হায় কয়েক জন পথচারী দেখতে পেলে রামু থানায় খবর দেন। রামু থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আবুল খায়েরের নির্দেশে গর্জনিয়া ফাঁড়ীর এস আই হুমায়ুন সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে  তাকে উদ্ধার করে  প্রথমে রামু থানায় নিয়ে আসেন। সেখান থেকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে নিখোঁজ মনিরকে পরিবার কাছে ফিরিয়ে দেন। অপরদিকে বিষয়টি নিয়ে ঐ এলাকায় নানা আলোচনা আর সমালোচনার ঝড় বইছে। কেন না সেই মনিরকে একবার নিয়ে কে বা কারা পুরুষ অঙ্গ কর্তন করেন। সেই ঘটনায় রামু থানায়  ৩ জনকে আসামী করে একটি মামলা চলমান রয়েছে। এবার নিখোঁজ হলে  আবারো থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন মনিরের শালা গর্জনিয়ার ব্যবসায়ী সরওয়ার আলম। সর্বশেষ তাকে ফিরে পাওয়ায় পুলিশ প্রশাসন ও সাংবদিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তার পরিবার।