সায়মা ওয়াজেদ ম্যাডাম, বর্তমানে অটিজম এবং নিউরোডেভেলপমেন্ট বিষয়ক বাংলাদেশ জাতীয় উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারপার্সন হিসাবে কাজ করছেন। তিনি বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থার মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ক Expert Advisory Panel Gi I Member। অতি সম্প্রতি বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা সায়মা ম্যাডামকে তাঁর উদ্ভাবনী কর্মক্ষমতার জন্য তাদের দক্ষিন পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের শুভেচ্ছা দূত হিসেবে নির্বাচন করেছেন। মানর্নীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য কন্যা সায়মা ম্যাডাম নন প্রফিটেবল গবেষনা ও কর্মদক্ষতা উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান সূচনা ফাউন্ডেশন এর চেয়ারপার্সন হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। এছাড়া তিনি Centre for Research and Information (CRI) এর অন্যতম ট্রাষ্টি হিসেবে নিয়োজিত আছেন। ম্যাডাম অটিজম চিকিৎসা ব্যবস্থায় ও উন্নয়নে বাংলাদেশ তথা এশিয়া মহাদেশে বিশাল অবদান রেখেছেন।

গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ১৫২ অনুচ্ছেদের বিধান অনুযায়ী বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ঘোষিত ২৫.০৮.১৯৮৩ অনুযায়ী ‘‘দি বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক প্র্যাকটিশনার্স অর্ডিন্যান্স ১৯৮৩ (অধ্যাদেশ নং-৪১ অব ১৯৮৩)’’ মোতাবেক রেজিস্টার্ড চিকিৎসক হিসেবে স্বীকৃত। অতএব হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকদের অটিজম চিকিৎসায়, প্রশিক্ষণ ও কমিটিতে অন্তভর্‚ক্তসহ যাবতীয় উন্নয়নমূলক কাজে সম্পৃক্ত করার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সুযোগ্য কন্যা সায়মা ওয়াজেদ ম্যাডামের কাছে আবেদন জানাচ্ছি।

দেশের জনগনের বৃহৎ অংশ হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা গ্রহন করছেন এবং বিশ^ স্বাস্থ্য সংস্থা কর্তৃক স্বীকৃত চিকিৎসা পদ্ধতি। এমতাবস্থায় সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা পেলে অটিজম চিকিৎসায় হোমিওপ্যাথি বিশেষ অবদান রাখবে।

আমাদের লক্ষ্য থাকবে অটিজম শিশুদের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করে উপযুক্ত দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে সাহায্য করা, যাতে করে তারা পরিবার ও সমাজের মধ্যে সর্বোচ্চ জীবনযাত্রার মানোন্নয়ন করতে সক্ষম হয়।

ডাঃ সামিনা আরিফ

বি.ফার্ম (অনার্স), এম. ফার্ম, এমবিএ, ডিএইচএমএস, পিডিটি

সহযোগী অধ্যাপক, ভাইস প্রিন্সিপ্যাল

ফেডারেল হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল।